মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ৭ আষাঢ় ১৪২৮ , ১১ জিলকদ ১৪৪২

সাহিত্য
  >
গল্প

ছোটগল্প ‘ঋণ’

হাবিব মোস্তফা অক্টোবর ১৫, ২০১৮, ১২:৪০:১১

  • ছোটগল্প ‘ঋণ’

আমিন সাহেবের বাসায় বড় ধরনের চুরি হয়েছে। চুরি যাওয়া সম্পদের তালিকায় রয়েছে- লাখ খানেক নগদ টাকা, গৃহকর্তীর ৮-১০ ভরি সোনা, বিদেশি কসমেটিকস এবং দামী কিছু শাড়ি। চুরি করেছে কাজের মেয়ে সুলতানা। সিসি ক্যামেরায় সুলতানার লাগেজসহ চলে যাওয়ার দৃশ্য অামিন সাহেব কিছুতেই মানতে পারছেন না। ভালো অংকের স্যালারি, উন্নত খাবার, পরিপাটি পোশাক, গোছানো শোবার ঘর, সুপরিসর আলাদা বাথরুম… দেবার পরও কি করে সুলতানা এমন কাজটি করতে পারল? এত বড় বেঈমান-নিমক হারাম মানুষ কি করে হতে পারে?

গৃহিনী বার বার সাবধান করছিল তার সাহেবকে:

- দেখো রুমির বাপ, সুলতানার হাবভাব আমি ভালো বুঝি না, তাকে এত প্রশ্রয় দিও না।কাজের মেয়েকে আইফোন কিনে দেয় কেউ শুনছো দুনিয়াতে?

- শোনো শাহিদা, কাজের মেয়ে বলে কি সে মানুষ না।তোমার ছোটবোন হলে তুমি কী করতে? ঈদ পার্বণে একটা দুইটা ছোটখাটো উপহার কিনে দেই বলে তুমি আমাকে এভাবে কটাক্ষ করতে পার না। সুলতানা আজ যেটা করেছে তাতে তো ওর কোনো দোষ দেখি না আমি।

- মানে দোষ তাহলে কার, আমার?

- তোমারই তো দোষ! সারাদিন মেয়েটাকে দিয়ে বাসার সমস্ত কাজ করাও। বাজার খরচ, রান্না বান্না, ঘর মোছা, তোমার শরীর ম্যাসেজ করা… একটা মানুষ কত কাজ করতে পারে? পালাবে না- তো বসে বসে তার জীবন শেষ করবে এখানে? ওরও তো একটা ভবিষ্যৎ আছে নাকি?

- ওহ, এইবার বুঝছি। বড় আপা আমাকে আগেই বলছিল- দেখ শাহিদা তোর জামাইয়ের দিকে নজর রাখিস, সুলতানার সাথে তার কেমন জানি একটা আলাদা পীরিত নজরে পড়ছে আমার।

- তুমি আর তোমার বড়বোন তো সব সময়ই এক লাইন বেশিই বুঝো। যাক, যা গেছে তা নিয়ে আর অশান্তি করো না। থানা পুলিশের কোনো দরকার নাই। আমি ঝামেলা পছন্দ করি না, মানুষ শুনলে কি বলবে ভাবছো? পরে উল্টো কাজের মেয়ে নির্যাতনের মামলা খাবো আমরা!

- আহারে দরদ! কাজের মেয়ের প্রতি এমন দরদ দুনিয়ায় কেউ দেখছে বলে আমার মনে হয় না। আচ্ছা, তুমি আমার রুমে বাথরুম থাকতে সুলতানার রুমের বাথরুমে কেন যেতে, এটা বলতো?

- আমাদের রুমের বাথরুম বিজি থাকলে আমি কি রুমের ভিতরেই পেশাব করব? সুলতানার বাথরুম কি আমি ইউজ করতে পারি না? ও মাই গড, এটা কেমন কথা শাহিদা? আর আমাদের বাথরুমের ফ্লোরে তুমি চুলে ফেলে রাখো, ভেজা কাপড় চোপড় দেখলে আমার গা ছমছম করে উঠে। তোমার বাথরুমে তো সিগারেটও খাওয়া যায় না, তুমি চিল্লাচিল্লি শুরু কর।সিগারেট না খেলে আমার বাথরুম হয় না, জেনেও কেন আমাকে অযথা ফালতু প্রশ্ন করছো- বলতো?

চুরির ঘটনার পাঁচ দিন পর কুড়িল বস্তি থেকে পঞ্চাশ বছরোর্ধ এক পুরুষ ও ২০-২২ বছরের এক তরুণীকে আপত্তিকর অবস্থায় আটক করে বাড্ডা থানা পুলিশ।

ওসির রুমে সুলতানার জোড়ালো দাবী-  আমিন সাবের সাথে তার বিয়ে হয়েছে বছর খানেক হল এবং তার পরামর্শেই সে বাসা থেকে জিনিসপত্র নিয়ে বের হয়ে গেছে।

খবর শুনে শাহিদা হার্ট এট্যাক করে হাসপাতালে ভর্তি। অপারেশনে রক্ত লাগবে। স্ত্রীর প্রতি দায়িত্ব পালনে আমিন সাহেব কখনো দ্বিধাদ্বন্দ্বে ভুগেন না। তাই শরীরে দূর্লভ গ্রুপের রক্ত বহন করা সুলতানাকে নিয়ে হাসপাতালে হাজির হলেন তিনি।রক্ত দিয়ে গৃহকর্তী শাহিদার স্নেহের ‘ঋণ’ পরিশোধ করার এমন সুযোগ হয়তো আর কখনোই পাবে না সুলতানা…।

নিউজজি/এসএফ

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers