সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১ , ৬ শাওয়াল ১৪৪৫

খেলা
  >
ক্রিকেট

তামিমের ব্যাটে চড়ে প্লে অফে বরিশাল

স্পোর্টস রিপোর্টার ২৩ ফেব্রুয়ারি , ২০২৪, ১৭:৫৩:৪৮

719
  • ফিফটির পর তামিম। ছবি-ফরচুন বরিশাল

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স : ১৪০/৮ (২০.০ ওভারে)

ফরচুন বরিশাল : ১৪১/৪ (১৯.৪ ওভারে)

ফল : ফরচুন বরিশাল ৬ উইকেটে জয়ী।

প্লেয়ার অব দ্য ম্যাচ : তামিম ইকবাল (ফরচুন বরিশাল)

এক রাউন্ড হাতে রেখে কোয়ালিফাইয়ার নিশ্চিত করেছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। প্রথম কোয়ালিফাইয়ারে রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে খেলবে তারা, তাও ঠিক হয়ে গেছে।

সে কারণেই রাউন্ড রবীন লিগে ফরচুন বরিশালের বিপক্ষে ম্যাচটি তাদের কাছে গণ্য হয়েছে প্রথম কোয়ালিফাইয়ারের ড্রেস রিহার্সল ম্যাচে। অন্যদিকে প্লে-অফে উঠতে হলে ফরচুন বরিশালকে জিততে হবে।

অধিনায়ক তামিমের ক্যাপ্টেন্স নকে (৪৮ বলে ৬৬) এই সমীকরণ মিলিয়ে ৪র্থ দল হিসেবে প্লে অফে উঠে গেছে ফরচুন বরিশাল (১২ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট)। আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি এলিমিনেটর রাউন্ডে তারা খেলবে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের বিপক্ষে।

 শেরে-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে বিপিএলের প্রত্যাবর্তন ম্যাচে  টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়ে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে ১৪০/৮-এ আটকে ফেলেছে ফরচুন বরিশাল।

ফরচুন বরিশালের বাঁ হাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম (৩-০-২০-৩) এবং পেসার সাইফউদ্দিন (৪-০-১৬-২) এদিন দারুণ বোলিং করেছেন। কুমিল্লার শক্তিশালী মিডল অর্ডারকে জমে উঠতে দেননি এই দুই বোলার। তাইজুল প্রথম স্পেলে (২-০-১০-২) লিটনকে আর্ম বলে করেছেন বোল্ড (১২ বলে ১২), অঙ্কনকে লং অফে (৬ বলে ১) ক্যাচ দিতে বাধ্য করেছেন।

দ্বিতীয় স্পেলে (১-০-১০-১) আন্দ্রে রাসেলের হাতে ছক্কা-চার খেয়ে তাকে প্লেড অন করেছেন (১১ বলে ১৪)। শেষ পাওয়ার প্লে-তে সাইফুদ্দিনের শেষ স্পেলটি (২-০-১৩-২) ছিল অসাধারণ।শেষ ওভারে ম্যাককয়কে ২ ছক্কা, ১ বাউন্ডারিতে জাকের আলী ১৬রান নিয়ে দলকে দিয়েছেন চ্যালেঞ্জিং স্কোর উপহার। ‌১৬ বলে ২ চার, ৪ ছক্কায় ৩৮ রানের ইনিংস উপহার দিয়েছেন জাকের আলী অনিক।

১৪১ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে তামিম-মায়ার্সের ৫৭ বলে ৬৪ রান জয়ের কক্ষপথে রেখেছে ফরচুন বরিশালকে। এনামুলকে ব্যাকওয়ার্ড স্কোয়ার লেগে বাউন্ডারি দিয়ে ছন্দে ফেরা তামিম বন্ধু মইন আলীকে ছক্কায় ম্যাচ উইনিং ইনিংসের পথে রেখেছেন দলকে।

৪০ বলে টি-২০ ক্যারিয়ারে ৪৮তম ফিফটি উদযাপনের দিনে দলকে জয়ের বন্দরের কাছাকাছি পৌছে দিয়েছেন। আন্দ্রে রাসেলের ইয়র্কারে ছক্কা মেরে পরের বলে লং অনে ক্যাচ দেয়ার আগে ৪৮ বলে ৬ চার,৩ ছক্কায় করেছেণ ৬৬ রান।

শেষ ৬ বলে ৮ রানের টার্গেট পাড়ি দিতে শেষ বল থ্রিলার পর্যন্ত যেতে হয়নি। শেষ ওভারের প্রথম বলে মুশফিক হাসানকে এক্সট্রা কভার দিয়ে মাহমুদউল্লাহ'র ছক্কা এবং চতুর্থ বলে ওভার থ্রো থেকে ২ রান নিয়ে দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে গেছেন মাহমুদউল্লাহ।মুশফিক হাসান (২/১৯) এবং  এনামুল (১/২২) দারুণ বোলিং করেছেন।

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন