শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ , ১৩ শাবান ১৪৪৫

খেলা
  >
ক্রিকেট

আইসিসির হল অব ফেমে তিন নতুন মুখ

ক্রীড়া ডেস্ক ১৩ নভেম্বর , ২০২৩, ১৯:২২:৫১

192
  • ছবি: ইন্টারনেট

আইসিসির হল অব ফেমে নতুন তিন মুখ জায়গা পেয়েছেন। তারা হলেন ভারতের বীরেন্দর শেবাগ ও শ্রীলঙ্কার অরবিন্দ ডি সিলভা। এছাড়াও এই তালিকায় প্রথম ভারতীয় নারী হিসেবে জায়গা পেয়েছেন ডায়ানা এডুলজি। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তিনজনকে যুক্ত করার খবর জানিয়েছে আইসিসি। হল অব ফেমে ডি সিলভা, এডুলজি ও শেবাগকে যথাক্রমে ১১০, ১১১ ও ১১২তম সদস্য করা হয়েছে।

চলতি বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনালের দিন (১৫ নভেম্বর) মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে সম্মানিত করা হবে এই তিন কিংবদন্তিকে। হল অফ ফেমার, মিডিয়া প্রতিনিধি, ফিকার সিনিয়র কর্মকর্তা ও আইসিসির ভোটিং প্রক্রিয়া শেষে এই তিনজনকে যুক্ত করা হয়েছে।  

১৯৯৬ সালে শ্রীলঙ্কার একমাত্র বিশ্বকাপ জয়ে বড় অবদান ছিল ডি সিলভার। বলা যায় একাই শিরোপা নির্ধারণী ফাইনালে ম্যাচের ভাগ্য গড়ে দিয়েছিলেন তিনি। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে অবিস্মরণীয় রান তাড়ায় ব্যাট হাতে খেলেছেন ১০৭* রানের অপরাজিত ইনিংস। বল হাতেও নিয়েছিলেন ৩ উইকেট।  ডি সিলভা শ্রীলঙ্কার হয়ে খেলেছেন ৯৩টি টেস্ট ও ৩০৮টি ওয়ানডে।

আইসিসির হল অব ফেমে যুক্ত হওয়ার পর ডি সিলভা বলেছেন, ‘আইসিসির হল অব ফেমে সম্মানিত হওয়ায় আমি গভীরভাবে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আমার পরিবার, আমার বাবা-মা, আমার বোন, আমার স্ত্রী ও সন্তানদের সমর্থন এবং ত্যাগের জন্য গভীর ধন্যবাদ প্রাপ্য, যা আমাকে সাফল্যের দিকে পরিচালিত করেছে।’

বীরেন্দর শেবাগ ২০১১ বিশ্বকাপে দুর্দান্ত খেলেছিলেন। আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে তার রান ১৭ হাজারেরও বেশি। ভারতের হয়ে অবশ্য প্রথম বৈশ্বিক শিরোপা জিতেছিলেন ২০০৭ সালের প্রথম টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপে। ভারতের হয়ে ১০৪টি টেস্ট, ২৫১ ওয়ানডে আর ১৯টি টি–টোয়েন্টি খেলেছেন শেবাগ।

হল অব ফেম-এ জায়গা করে নিতে পেরে বেশ আনন্দিত শেবাগ, ‘আমি আইসিসি এবং জুরিকে ধন্যবাদ জানাতে চাই আমাকে এই সম্মানে অন্তর্ভুক্ত করার জন্য। এই সম্মানের জন্য আমি আমার পরিবার, বন্ধু, সতীর্থ এবং অগণিত সমর্থককে ধন্যবাদ জানাতে চাই যারা আমার জন্য নিঃস্বার্থভাবে প্রার্থনা করেছেন।’

ভারতের নারী ক্রিকেট ইতিহাসের প্রথম সুপারস্টার এডুলজি। ১৭ বছরের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে ২০ টেস্ট ও ৩৪ ওয়ানডে খেলেন এই অলরাউন্ডার। বিশ্বকাপ তিনটি আসরের মধ্যে দুটিতে নেতৃত্ব দেন ভারতকে। অবসর নেওয়ার সময় টেস্টে ৬৩ ও ওয়ানডে ৪৬ উইকেট ছিল তার।

আইসিসির সম্মাননা পেয়ে ৬৭ বর্ষী এডুলজি বলেছেন, ‘শুরুতেই আইসিসি এবং জুরি বোর্ডকে ধন্যবাদ জানাতে চাই, আমাকে আইসিসি হল অফ ফেম ২০২৩-এ অন্তর্ভুক্ত করার জন্য নির্বাচিত করা হয়েছে সেজন্য। প্রথম ভারতীয় নারী ক্রিকেটার হিসেবে অভিষিক্ত হওয়াতে আমি খুবই আনন্দিত। সারাবিশ্বের পুরুষ ও নারী ক্রিকেটারদের একই গ্যালাক্সিতে যোগ দেয়া সম্মানের ব্যাপার।’

নিউজজি/সিআর

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন