সোমবার, ২১ জুন ২০২১, ৬ আষাঢ় ১৪২৮ , ১০ জিলকদ ১৪৪২

খেলা
  >
ক্রিকেট

তৃতীয় স্পিনারের অভাব অনুভূত হচ্ছে

সালেক সুফী,মেলবোর্ন থেকে ১ মে , ২০২১, ২০:৫৭:০৭

  • সালেক সুফী এবং বাংলাদেশ-শ্রীলংকা টেস্ট সিরিজের লোগো।

শ্রীলংকা দলে তিনজন স্পিনার নির্বাচন দেখেই অনুমান করেছিলাম উইকেটে একসময় স্পিন ধরবে। বাংলাদেশ কেন অফ স্পিনারকে নাঈমকে রাহির পরিবর্তে একাদশে নিল না ?তৃতীয় দিনের খেলা দেখে এ প্রশ্নই উঠছে । নাইম দলে থাকলে স্পিনে বিকল্প বাড়তো। বাড়তো বৈচিত্র। 

লোয়ার অর্ডারের ব্যাটিং আরো মজবুত হতো। প্রথম টেস্টে নিষ্প্রান উইকেটে ভালো ব্যাটিং করেছে বাংলাদেশ। তবে যখনই একটু চ্যালেঞ্জিং উইকেট পেলো, তখনই বাংলাদেশ বাটিংয়ের দুর্বল দিক গুলো ফুটে উঠলো। টস জয় স্বাগতিক দলকে সুবিধা দিয়েছে,তা এখন বলাই যাচ্ছে। সবচেয়ে ব্যাটিং উপযোগী সময়ে ব্যাটিং করার সুযোগ পেয়েছে তারা।

উইকেট থেকে যা কিছু সুবিধা নেয়া সেটি তাসকিন দুরন্ত পেস এবং অ্যাকুরেসি দিয়ে আদায় করেছে। ক্যাচগুলো না ফস্কালে হয়তো শ্রীলংকা দলকে ৪০০ রানে আটকে রাখা যেত।  হয়নি সেটা। ৪৯৩/৭ ইনিংস ঘোষণা করে শ্রীলংকা ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নিয়েছে। তৃতীয় সকাল থেকেই উইকেটের চরিত্ত পাল্টে যেতে শুরু করে। কিন্তু তাই বলে বাংলাদেশ ইনিংস নবীন স্পিনারের মোকাবেলায় মুড়ি-মুড়কির মতো ধসে পড়বে  সেটা মেনে নিতে কষ্ট হয়। 

সিরিজ শুরুতেই লিখেছিলাম টিমের তিন প্রধান তামিম , মমিনুল, মুশফিককে দ্রুত ৪০,৫০ ,৯০ করলে যথেষ্ট হবে না। দীর্ঘ সময় ব্যাটিং করে দলের ইনিংসের হাল ধরতে হবে। তরুণরা একটু কঠিন উইকেটে স্বাভাবিক খেলতে পারবে না। হলেও তাই আবারো দ্রুত নিজের স্বভাবসুলভ ভঙ্গিতে স্বাগতিক বোলারদের উপর ছোয়াও হয়ে ৯২ রান করে ভরসা দিয়েছিলো।

একপ্রান্ত আঁকড়ে রাখলে তামিমকে কেন্দ্র করে বাংলাদেশ ইনিংস গতি পেতো।  মোমিনুল এবং মুশফিক হাল ধরতে চেষ্টা করেছিল। ওদের দুটো ইনিংস বিকশিত হবার মুহূর্তে মেন্ডিস এবং জয়াবিক্রমা তুলে নিলে বাংলাদেশ পথ হারায়।  বাংলাদেশ ইনিংস ২৫১ রানে গুটিয়ে গেলো।

অভিষিক্ত জয়াবিক্রমাকে প্রশংসা করতেই হবে। মোরাতুয়ার ২২ বছরের যুবক বাঁ হাতি অর্থডক্স স্পিনের ফাঁদে জড়িয়ে বাংলাদেশের ব্যাটিং বিক্রমকে একাই ধসিয়ে দিয়েছে। এমন নয় যে বাংলাদেশ বাঁ হাতি অর্থডক্স স্পিন খেলতে অভস্থ না। দলের মধ্যে বাঁ হাতি স্পিনার আছে।  কয়েকটি আউট আনাড়ির মতো হয়েছে। যা দেখতে দৃষ্টিকটু। 

খেলায় আরো দুই দিন বাকি। ২৪২ রান এগিয়ে থেকেও শ্রীলংকা বাংলাদেশকে ফলো অণ করায়নি উইকেটের আরো ভাঙ্গন ধরানোর অপেক্ষায়।  দিন শেষে দ্বিতীয় ইনিংসে ১৭/২ রান করে শ্রীলংকা এখন  ২৫৯ .রানে এগিয়ে গাছে।  চতুর্থ দিন লাঞ্চের পর একঘন্টা ব্যাটিং করে ৪০০  রান টার্গেট ছুড়ে দিলে এই ম্যাচ বাঁচানো বাংলাদেশের জন্য দুরূহ হয়ে পড়বে, তা বলাই বাহুল্য।  

বাংলাদেশকে দ্বিতীয় ইনিংসে ভালো ব্যাটিং করে প্রমান করতে হবে প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসের ব্যাটিং হঠাৎ জ্বলে উঠে নিভে যাওয়া নয়।

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers