সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ , ৮ মুহররম ১৪৪৬

খেলা

মেসি-আলভারেসের নৈপুণ্যে কোপা আমেরিকার ফাইনালে আর্জেন্টিনা

ক্রীড়া ডেস্ক জুলাই ১০, ২০২৪, ০৮:২০:০৪

127
  • ছবি: ইন্টারনেট

কোপা আমেরিকার শিরোপা ধরে রাখার মিশনে দাপটের সঙ্গে চলছে আর্জেন্টিনা। সে ধারা অব্যাহত রেখে বুধবার বাংলাদেশ সময় সকালে লিওনেল মেসি ও হুলিয়ান আলভারেসের গোলে কানাডাকে হারিয়ে এ টুর্নামেন্টের ফাইনালে উঠেছে লিওনেল স্কালোনির দল।

বাংলাদেশ সময় বুধবার সকালে প্রথম সেমি-ফাইনালে কানাডার বিপক্ষে ২-০ গোলে জিতেছে আর্জেন্টিনা। প্রথমার্ধে দলকে এগিয়ে দেন আলভারেস। বিরতির পর ব্যবধান বাড়ান মেসি। 

যুক্তরাষ্ট্রের নিউ জার্সিতে মেটলাইফ স্টেডিয়ামে আজ কোপা আমেরিকার সেমিফাইনালে শুরু থেকেই দারুণ খেলে আর্জেন্টিনা। এ সুবাদে ম্যাচের ২২ মিনিটে হুলিয়ান আলভারেসের নৈপুণ্যে এগিয়ে যায় তিনবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। কানাডার রক্ষণে বক্স থেকে বেশ সামনে দুই ডিফেন্ডার অ্যালিস্টার জনস্টন ও ময়েস বোম্বিতোর মাঝে ওত পেতে ছিলেন আলভারেজ। অপেক্ষা ছিল শুধু একটি থ্রু পাসের। ব্যাপারটা বুঝতে পেরেই সম্ভবত মাঝ মাঠ থেকে বল বাতাসে ভাসিয়ে আলভারেজের সামনে ফেলেন আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডার রদ্রিগো দি পল। ডান পায়ে বলটি দারুণভাবে রিসিভ করে এক ডিফেন্ডারকে পেছনে ফেলে ঠান্ডা মাথায় গোল করেন আলভারেস।  ডিয়েগো ফোরলান, রোমারিও ও মেসির পর চতুর্থ খেলোয়াড় হিসেবে কোপা আমেরিকা ও বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে গোল করলেন ম্যানচেস্টার সিটি ফরোয়ার্ড।

বিরতির আগে গোল করার দারুণ সুযোগ পেয়েও নষ্ট করেন মেসি। ৪৪তম মিনিটে কানাডার বক্সে ফেলা দি মারিয়ার পাস আলভারেজ ডামি করলে বল পেয়ে যান মেসি। প্রথম টাচে ডিফেন্ডার জনস্টনকে কাবু করে শট নিলেও সেটি পোস্টের বাইরে ছিল। এবার কোপায় নিজের প্রথম গোলটি তুলে নিতে মেসিকে অবশ্য বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি।

বিরতির পর ৫১ মিনিটে অবশ্য গোল করেন মেসি। কানাডার এক ডিফেন্ডার রক্ষণে বেশি নিচে নেমে যাওয়ায় আর্জেন্টাইন অধিনায়ককে আর অফসাইড নিয়ে ভাবতে হয়নি। এনজো ফার্নান্দেজ বক্সের জটলার মধ্যে শট নিলে মেসি তাতে শুধু পা–টা ছুঁইয়েছেন। বল জালে! কানাডা অফসাইডের অভিযোগ তোলায় ভিডিও রিপ্লে দেখে গোল বহাল রাখেন রেফারি। 

দুই গোল ব্যবধানে পিছিয়ে পড়ার পর ৬৮ মিনিটে আরও বাজে পরিস্থিতিতে পড়ে কানাডা। পায়ের চোটে মাঠ ছাড়েন কানাডা তারকা আলফোন্সো ডেভিস। ম্যাচের ৮৯ মিনিটে বদলি নামা তানি ওলুয়াসারি দারুণ সুযোগ নষ্ট করেন। বক্সের মধ্যে বল পেয়ে তিনি দুর্দান্ত হেড করেন। তবে তার নেওয়া শট দুর্দান্তভাবে পা দিয়ে ঠেকান আর্জেন্টিনার গোলকিপার এমিলিয়ানো মার্তিনেস। বাকি সময়ে কোন দলই পায়নি জালের দেখা। যে কারণে ২-০ গোলের জয়ে আবারও কোপার ফাইনালে উঠার আনন্দে মাতে আর্জেন্টিনা।  

নিউজজি/সিআর

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন