শনিবার, ১২ জুন ২০২১, ২৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮ , ১ জিলকদ ১৪৪২

খেলা

জিম্বাবুয়েকে হোয়াইট ওয়াশে পাকিস্তানের বিশ্বরেকর্ড

স্পোর্টস রিপোর্টার মে ১০, ২০২১, ১৮:১৫:৩৯

  • জিম্বাবুয়েকে টেস্ট সিরিজে হোয়াইট ওয়াশ করার পর পাকিস্তান দল।ছবি-ক্রিকেইনফো

পাকিস্তান ১ম ইনিংস : ৫১০/৮ডি.(১৪৭.১ ওভারে)

জিম্বাবুয়ে ১ম ইনিংস : ১৩০/১০ (৬০.৪ ওভারে)

জিম্বাবুয়ে ২য় ইনিংস : ২৩১/১০ (৬৮.০ ওভারে)

ফল : পাকিস্তান ইনিংস ও ১৪৭ রানে জয়ী।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ : আবিদ আলী (পাকিস্তান)।

ম্যান অব দ্য সিরিজ : হাসান আলী (পাকিস্তান)।

তৃতীয় দিনেই হার দেখেছে জিম্বাবুয়ে। সেদিনই হোয়াইট ওয়াশের উৎসব করতে পারতো পাকিস্তান। তবে জিম্বাবুয়ের শেষ উইকেট জুটি এবং আলোর স্বল্পতায় ম্যাচটি টেনে নিয়েছে স্বাগতিক দল চতুর্থ দিনে।ইনিংস হার এড়ানোর জন্য ১৫৮ রানের অবিশ্বাস্য লক্ষ্যটা পাড়ি দিতে পারেনি জিম্বাবুয়ে।

চতুর্থ দিনে জয়ের আনুষ্ঠানিকতার জন্য খুব বেশি সময় অপেক্ষা করতে হয়নি পাকিস্তানের। দিনের ৫ম ওভারে শাহীন আফ্রিদি জিম্বাবুয়ের কফিনে শেষ পেরেক ঠুকে দিয়েছেন। ইনিংস এবং ১৪৭ রানে জিতে জিম্বাবুয়েকে ২ ম্যাচের সিরিজে হোয়াইট ওয়াশ করেছে পাকিস্তান।

হারারে টেস্টের প্রথম ইনিংসে হাসান আলী (৫/২৭), দ্বিতীয় ইনিংসে নোমান আলী (৫/৮৬)-এর পর শাহীন শাহ আফ্রিদি (৫/৮৬) পেয়েছেন ৫ উইকেট। ৪র্থ দিনে নিজের তৃতীয় ওভারে লুক জংগে-কে শাহীন শাহ আফ্রিদি শিকারের সাথে সাথে হয়ে গেছে বিশ্বরেকর্ড।

এক টেস্টে ২ ইনিংসে এক দলের তিন বোলারের ৫টি করে উইকেট ! টেস্ট ইতিহাসে এমন কৃতি'র ৬ষ্ঠ দৃষ্টান্ত স্থাপিত হয়েছে হারারেতে। ১৯৯৩ সালের পর এমন ঘটনা দেখল বিশ্ব।    

হারারে টেস্টের দ্বিতীয় দিনেই ইনিংস হারের শঙ্কা দেখেছে জিম্বাবুয়ে। আবিদ আলীর ডাবল (২১৫*),আজহার আলীর সেঞ্চুরি (১২৬) এবং নোমান আলীর নার্ভাস নাইনটিজে (৯৭) কাঁটা পড়ার ম্যাচে পাকিস্তান বিশাল স্কোরে (৫১০/৮ ডি.) ইনিংস ঘোষনা করেই জিম্বাবুয়েকে বিপদে ফেলে দিয়েছে।

দ্বিতীয় দিন শেষে জিম্বাবুয়ে স্কোরশিটে ৫২ রান উঠতে ৪ ব্যাটসম্যান হারিয়ে আর একটি ইনিংস হারের শঙ্কায় পড়েছে। সেখান থেকে তৃতীয় দিনে শঙ্কা কাটাতে পারেনি জিম্বাবুয়ে। পেস বোলার হাসান আলীর বোলিংয়ে (৫/২৭) মাত্র ১৩০ রানে অল আউট হয়েছে জিম্বাবুয়ে প্রথম ইনিংসে।

দ্বিতীয় দিন ১ উইকেট (১/৭) পেয়েছিলেন এই পেসার।তৃতীয় দিনের চতুর্থ বলে চিসোরোকে শিকারের মধ্য দিয়ে ছড়িয়েছিলেন আতঙ্ক এই পেসার। তৃতীয় দিনে তার স্পেলটি ছিল ৭-১-২০-৪ !

ফলো অনে পড়ে দ্বিতীয় ইনিংসেও ব্যাটিং বিপর্যয়ের কবলে পড়েছে জিম্বাবুয়ে। তৃতীয় উইকেট জুটিতে চাকাভা (৮০), টেলর (৪৯) গড়েছিলেন প্রতিরোধ। যোগ করেছিলেন ৭৯। লুক জংগে-মুজারাবানির ১০ উইকেট জুটি ৩৯ মিনিটে ২৬ রান করে ব্যবধান কমিয়েছে শুধু। ২২০/৯ স্কোর নিয়ে চতুর্থ দিন ব্যাটিংয়ে নেমে এই জুটি যোগ করেছে ১১ রান। খেলেছে ৫ ওভার। লুক জংগের প্রতিরোধ থেমেছে ৩৭ রানে।চতুর্থ দিনে শাহীন শাহ আফ্রিদির স্পেলটি ছিল (৩-০-৭-১)।

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers