বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ১২ শ্রাবণ ১৪২৮ , ১৭ জিলহজ ১৪৪২

অন্যান্য
  >
ইয়োগা

বিশ্বের প্রথম লকডাউনের বর্ষপূর্তি

নিউজজি ডেস্ক ২৩ জানুয়ারি , ২০২১, ২০:২৪:৫৯

  • ছবি : ইন্টারনেট থেকে

ঢাকা: ২০১৯ সালের শেষ দিকে চীনের হুবেই প্রদেশের প্রধান শহর উহানে ছড়িয়ে পড়ে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস। এরপর ধীরে ধীরে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকায় ২০২০ সালের ২৩ জানুয়ারি বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে উহানে লকডাউন ঘোষণা করে চীন।

স্বাস্থ্যসতর্কতার অংশ হিসেবে প্রায় ১০ কোটি মানুষকে এক জায়গায় আটকে রেখে ‘লকডাউন’ শুরু করে দেশটি। টানা ৭৬ দিন ধরে লকডাউনের জারি থাকে উহানে। জনমানবহীন মৃত্যুপুরীতে পরিনত হয় শহরের পথঘাট। এরপরেও নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়নি করোনার সংক্রমণ। কয়েক মাসের মধ্যেই পৃথিবীব্যাপী ছড়িয়ে পড়ে মহামারী কোভিড-১৯। নিরুপায় হয়ে চীনের মতো লকডাউনের পথকেই বেছে নেয় বিশ্ববাসী।

শুরু থেকেই করোনা সংক্রমণের খবর প্রকাশে বাধা দিয়ে, আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা গোপন করে আর সরকারের বিরুদ্ধে আনা বিভিন্ন অভিযোগ অস্বীকার করে বিশ্বজুড়ে সমালোচিত হয় চীন। যদিও পরে মহামারীর উপকেন্দ্র উহান বিশেষ ধৈর্য আর সাহসিকতার পরিচয় দিয়ে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে করোনার সংক্রমণ। করোনা নির্মূলে নজির সৃষ্টি করে উহানবাসী। একইসঙ্গে দেশজুড়ে করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে সফলতা পায় চীন সরকার।

আতংকময় সেই দিনগুলো আজও ভুলতে পারেননি উহানের লোকজন। বিবিসিকে দেয়া সাক্ষাৎকারে অনেকেই জানিয়েছেন তাদের দুঃসহ স্মৃতির কথা। ৭৬ বছরের এক বৃদ্ধের জানান, “করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর যে আবার জীবনের স্বাদ পাব সেটাই ভাবিনি।“

উহানের যে বাজার থেকে মানবদেহে এই মহামারী রোগের উৎপত্তি সেখানে যেতে আজও ভয় পান চীনের নাগরিকরা। তারপরেও রোগ সংক্রমণ দমাতে সরকারে পদক্ষেপে সন্তুষ্ট সবাই। উহানের এক হোটেলের মালিক বলেন, “সরকার এমন কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ না করলে আরও বহু মানুষ মারা যেত।“

যদিও ভ্যাকসিন আসার পরেও শেষ হয়নি করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধ। প্রাণঘাতী করোনায় এ পর্যন্ত প্রায় ২০ লাখের বেশী মানুষের মৃত্যু হয়েছে চীনের হুবেই প্রদেশে।

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
        
copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers