সোমবার, ২১ জুন ২০২১, ৬ আষাঢ় ১৪২৮ , ১০ জিলকদ ১৪৪২

জীবনযাত্রা
  >
অন্যান্য

দল বেঁধে সেহরি

নিউজজি ডেস্ক ১৯ মে , ২০১৮, ১০:২০:৩০

  • দল বেঁধে সেহরি

ব্যাপারটা তরুণদের মধ্যে সীমাবদ্ধ ছিল এখন অনেকেই নিজেদের পরিবারের সবাইকে সঙ্গে নিচ্ছে। ঢাকায় এখন সেহরীর পর্বটা বাইরে সেরে নেয়া একটা নতুন ট্রেন্ড। ইফতার পার্টির পাশাপাশি নতুন প্রজন্ম এখন সেহেরী পার্টিও করছে। বন্ধুদের নিয়ে রাতের বেলা সেহরি খেতে বেড়িয়ে পরা হচ্ছে অহরহ। সব মিলিয়ে সেহেরীর সময়টাকেও বেশ উপভোগ্য করে তুলেছে নতুন প্রজন্ম। অবশ্য শুধু বন্ধু-বান্ধবই নন, অনেকই খেতে যাচ্ছেন পরিবার পরিজন সহ। আসুন জেনে নেই কোথায় কোথায় গেলে পাবেন পছন্দ মতন সেহেরী। 

নাজিরাবাজারের হোটেল রাজ্জাকঃ 

সেহেরীর জন্য পুরান ঢাকার নাজিরাবাজারের হোটেল রাজ্জাকের কথা সবার আগে বলতে হবে। এখানে এই হোটেলটি সারা বছরই গভীর রাত পর্যন্ত খোলা থাকে। আর রমজানের সময় সেহেরীতে রীতিমতো উপচে পড়া ভীড় থাকে এখানে। একটু আগে না গেলে খাবার শেষ হয়ে যেতে পারে। তাই একটু আগেই যাওয়ার চেষ্টা করুন। এখানের মেনুতে আছে খাসির লেগ রোস্ট ,কাচ্চি বিরিয়ানি, পোলাও, মুরগি বিরিয়ানি, গোটা মুরগির রোস্ট, আচারী চিকেন,চিকেন টিক্কা, বোরহানি, ফিরনি ও চা। সাথে আছে ভাত ও নান/ পরোটার ব্যবস্থাও। 

ঠাটারী বাজারের স্টার কাবাব হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্টঃ 

সেহেরী করতে ঠাটারী বাজারে চলে যেতে পারেন। এখানে গেলে আপনার মনেই হবে না যে গভীর রাতে এসেছেন। রাস্তাঘাট জমজমাট, দোকানপাট খোলা এবং প্রচুর মানুষের আনাগোনাই এখানকার গভীর রাতের দৃশ্য। গাড়ি নিয়ে গেলে আপনার পার্ক করতে সমস্যা হতে পারে কারণ এই হোটেলের নিজস্ব কোন পার্কিং নেই। হোটেলের সামনের অপ্রশস্ত রাস্তাতেই এক পাশে গাড়ি চাপিয়ে রাখতে হবে। এখানে পাবেন ভাত, ডাল, চিকেন রেজালা, চিকেন রোস্ট, খিচুড়ি, কাচ্চি বিরিয়ানি, বোরহানি, ফিরনি ও চা। সাথে যথারীতি আছে ভাত ও নান/ পরোটার ব্যবস্থাও। 

ধানমন্ডির স্টার কাবাবঃ 

রোজা উপলক্ষে এইবার ধানমন্ডির স্টার কাবাব তাদের হোটেল খোলা রেখেছে। দোকানের সামনে বড় করে ব্যানার ঝুলানো হয়েছে ‘এখানে সেহরির সুব্যবস্থা আছে’ ঘোষণা দিয়ে। স্টার কাবাবের মেনুতে আছে সাদা ভাত, চিকেন বিরিয়ানি, নান রুটি, সবজি, রুই মাছ, রূপচাঁদা, পাবদা, ইলিশ, মুরগি মসল্লাম, মুরগি ঝালফ্রাই, খাসির ডাল-মাংস, খাসির রেজালা ও মসুরের ডাল। খাবার শেষে ডেসার্ট হিসেবে পাবেন এখানকার মজাদার ফিরনি ও চা। এই তিনটি হোটেল ছাড়াও পুরান ঢাকার সদরঘাট গেলে পাবেন কিছু ছোট হোটেল। এখানের পরোটা ও ডিম ভাজির ঘ্রাণে আপনি না খেয়ে ফিরে আসতে পারবেন না। 

বাইরে সেহরি করতে গেলে কিছু ব্যাপার মনে রাখা ভালো 

বাইরে সেহরি করতে চাইলে কোথায় করবেন ঠিক করে খোঁজ খবর নিয়ে নিন। 

খোলা থাকবে কিনা এবং কতক্ষণ খাবার থাকে।

গাড়ি ছাড়া পরিবার নিয়ে বের না হওয়াই ভালো কারণ ঈদের আগে ছিনতাই বেড়ে যায়। 

খুব বেশি তেল-ঘি যুক্ত খাবার পেটে সহ্য না হলে না খাওয়াই ভালো। 

সেহেরী বাইরে খেলে বেশি করে পানি খেয়ে নিন।

গাড়ি পার্ক করতে অবশ্যই জানালা ও গাড়ির দরজা ভালো করে লক করে নিবেন।

ছবি – ইন্টারনেট 

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers