সোমবার, ২১ জুন ২০২১, ৬ আষাঢ় ১৪২৮ , ১০ জিলকদ ১৪৪২

জীবনযাত্রা
  >
স্বাস্থ্য

হুট-হাট ঘুম পাচ্ছে কেন?

নিউজজি ডেস্ক ২০ জুন , ২০১৯, ১৭:৫৩:১৮

  • ছবি: সংগৃহীত

গতরাতে ঘুমটা বেশ হয়েছে। সকালে এলার্মের আগেই নির্ঝঞ্ঝাট জেগে ওঠা। বেশ ফুরফুরে দিনের শুরু। কিন্তু গাড়িতে উঠেছেন, ঘুম এসে গেলো আর ঝিম ধরে গেলেন। অফিসে ঢুকলেন, তাকাতেই পারছেন না। এত এত ঘুম আপনাকে ডুবিয়ে দিচ্ছে।  

সম্প্রতি আমেরিকার পেন স্টেট কলেজ অফ মেডিসিনের একটি গবেষণায় উঠে এসেছে, দিনে অত্যাধিক ঘুম পাওয়ার অর্থ, শরীরে দু'টি রোগ বাসা বাঁধার আগাম পূর্বাভাস। ওবিসিটি এবং ডায়াবেটিস। সঙ্গে এটাও জানা গিয়েছে, অতিরিক্ত ডিপ্রেশন থেকেও এমনটা হতে পারে। পরে এটাই ভয়ানক আকার ধারণ করতে পারে। যদি রাতে ৬-৮ ঘণ্টা ঘুমোনোর পরও সকালে উঠে জলখাবার খেয়েই ফের ঘুম পায় তাহলে এটাকে ডাক্তারি ভাষায় বলা হয় এক্সেসিভ ডেটাইম স্লিপিনেস বা ইডিএস। কলেজের অধ্যাপক জুলিও ফার্নান্দেজ মেনডোসা জানাচ্ছেন, যদি এমনটা হয় তা হলে দেরি না করে ওজন কমানোর দিকে নজর দেওয়া উচিত। সঙ্গে এটাও জানিয়েছেন, যদি ওজন তেমন বেশি না হয়, তা হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া অত্যন্ত জরুরি।

এমনিতে আমাদের একটা চলতি ধারণা রয়েছে, যে রাতে ভালো ঘুম না হলে সকালে ঘুম থেকে ওঠার পরেও দীর্ঘ ক্ষণ ঘুম ঘুম ভাব থেকে যায়। সময়-অসময়ে ঘুমও পায়। তবে সব সময় এমনটা হলে চিন্তার বিষয়। সে ক্ষেত্রে চিকিৎসকরা আরও একটি বিষয়ে আলোকপাত করেন। তাঁরা জানান, যাঁদের ওজন বেশি বা ওবিসিটির পর্যায় পৌঁছে গিয়েছেন, তাঁদের ঘাড়ের পেছনে অতিরিক্ত মেদ জমার ফলে উইন্ড পাইপে শোয়ার সময় চাপ পড়ে। এতে রাতে বহুবারই তাঁদের ঘুম ভেঙে যায়। তার সঙ্গে শরীরে কার্বন-ডাই-অক্সাইডের পরিমাণও বাড়তে থাকে। তাই দিনের বেলায়ও ভীষণ ঘুম পেতে পারে। তার সঙ্গে শরীরেও নানা সমস্যা দেখা দেয়। 

ডিপ্রেশনে ভোগা কোনও ব্যক্তিও ঠিক করে ঘুমোতে পারেন না। কারণ, একটা চিন্তা নিয়ে শোয়ার ফলে ব্রেন সজাগ থাকে। ঘুম পেতেও বেশ দেরি হয়। এই অনিদ্রা থেকেই দেখা দেয় নানা সমস্যা।

ছবি ও তথ্য – ইন্টারনেট 

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers