সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ১০ শ্রাবণ ১৪২৮ , ১৫ জিলহজ ১৪৪২

জীবনযাত্রা
  >
ফ্যাশন

গোলাপি রঙ কি শুধু নারীদের জন্যে

নিউজজি ডেস্ক ২৭ মার্চ , ২০২১, ১৬:৪৫:৪০

  • ছবি: ইন্টারনেট

ঢাকা: নারী মানেই গোলাপি রঙ। এমন ধারণা বহুকাল ধরেই চলে আসছে। কিন্তু সত্যি কি জেন্ডার আর রঙ- এ দুটোর মধ্যে কোনো সম্পর্ক আছে? আবার নারী শিশুর প্রসঙ্গ এলেই আমরা গোলাপি রঙের জামা জুতো আর খেলনার কথা ভাবি? তাহলে জেন্ডারের সঙ্গে কি কোনো সম্পর্ক রয়েছে নাকি এটা বাণিজ্যিক বা সামাজিক  কারণ।

এ প্রসঙ্গে ফ্যাশন ডিজাইনার দোয়েল বলেন, নারী বা মেয়েরা গোলাপি রঙ পছন্দের ব্যাপারটা পুরোপুরি সামাজিক কিংবা বাণিজ্যিক নয়। এর পেছনে আছে মানসিক এবং শারীরিক কিছু ব্যাপারও। ছেলেদের চাইতে একটু বেশি লালচে রঙ পছন্দ নারীদের জন্মগতভাবে পছন্দ।

এসব তথ্য গবেষণায় উঠে এসেছে বলেও জানান দোয়েল। তিনি বলেন, নিউক্যাসল বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নায়ুবিজ্ঞানী এনিয়া হার্লবার্ট এবং ইয়াজু লিং ২০-২৬ বছরের মোট ২০৮ জন মানুষের উপরে রঙ নির্বাচন পরীক্ষা চালান। অংশগ্রহণকারীদের বলা হয়, কয়েক শেডের রঙ, আলো এবং অন্ধকারের মিশেলে রঙ, বিভিন্ন আকৃতিতে থাকা রঙের মধ্যে থেকে নিজের পছন্দের রঙটি বাছাই করতে। সপ্তাহ দুয়েক পর আবার তাদের নিয়ে একই পরীক্ষা করা হয়। সেখানে দেখা যায় প্রায় সব মানুষই সাধারণত নীল রঙ পছন্দ করে। তবে ছেলেরা যে ক্ষেত্রে নীলের সাথে সবুজের মিশ্রণ পছন্দ করে,  সেক্ষেত্রে মেয়েরা একটু লালচে রঙয়ের নীল পছন্দ করে। অনেকটা বেগুনী ধাঁচের রঙ এগিয়ে থাকে মেয়েদের পছন্দের তালিকায়।

এতো গেল ফ্যাশন ডিজাইনারদের কথা এবার আসি আপনার কাছে। আচ্ছা আপনি বলুন তো, আপনার নিজের শিশুটির জন্য কোনো জামা কিনতে হলে বা কোনো পণ্য কিনতে হলে কোথায় যাবেন? অবশ্যই কোনও শপিংমলে বা দোকানে। আর দোকানে গিয়ে জানতে পারলেন যে, নির্দিষ্ট রঙয়ের জামা এখন ফ্যাশন দখল করে রেখেছে। সবাই কিনছেও সেটা। তাহলে আপনিও সেই রঙের জামা বা জুতা কিনবেন না? হয়তো কিনবনে। আসলে রঙের প্রতি বিশেষ আকর্ষণ তৈরি হওয়া শুরু হয় তখন থেকেই। আপনার কেনা জিনিসটিই আপনার সন্তান পরছে। আর শিশুরা অনুকরণপ্রিয়। সে তার চারপাশে যা দেখবে সেটাই তো শিখবে। এভাবেই একটি রঙের প্রতি তারও দুর্বলতা তৈরি হয়।

তবে গবেষণা কিন্তু অন্য কথা বলছে। গবেষকদের যুক্তি, জন্মগতভাবে নয়, বরং জন্মাবার বেশ কিছুদিন পর চারপাশের মানুষের এবং সমাজের মন মানসিকতা দ্বারা প্রভাবিত হয়েই এমন রঙ বেছে নেয় মেয়েরা। তাই পছন্দের রং এখানে কোনো বড় ব্যাপার নয়। আসল ব্যাপার হলো চারপাশের পরিবেশ। পরিবেশ একটা শিশুকে যে ধারণা দেবে, সে সেটাই করবে। তাদের দাবি, দুই বছর বয়স থেকেই মেয়েরা গোলাপি রঙয়ের দিকে ঝুঁকতে থাকে। আর ঠিক তার কাছাকাছি কোনো একটি বয়স থেকেই গোলাপী রঙকে সতর্কতার সাথে দূরে সরিয়ে রাখতে শুরু করে  ছেলেরা। সেদিক দিয়ে বলতে গেলে, এই আচরণ থেকে বোঝাটা খুব স্বাভাবিক যে,

আসল কথা হলো- গোলাপি রঙ আর দশটা রঙয়ের মতোই একটি রঙ। একজন মানুষ, নারী ও পুরুষভেদে, গোলাপি রংটিকে পছন্দ করতেই পারেন। তার মানে এই নয় যে, তাকে নারী হতে হবে। তবে সামাজিক প্রভাবে ইতিহাসে বারকয়েক হাতবদল হয়ে গোলাপি এখন হয়ে উঠেছে নারীদের রঙ। তবে একটি ব্যাপার সঠিক যে, গোলাপি মানুষকে আকর্ষণ করে বেশি। ২০০২ সালে সুইজারল্যান্ডে একটি গবেষণায় দেখা গেছে, কাগজে গোলাপি রঙ দিলে মানুষ লিফলেট কিংবা ফর্মের প্রতি বেশি আগ্রহী হয়ে ওঠে। যেটা কিনা অন্য  কোনো রঙয়ের ক্ষেত্রে হয় না!

 

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
        
copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers