সোমবার, ২১ জুন ২০২১, ৬ আষাঢ় ১৪২৮ , ১০ জিলকদ ১৪৪২

জীবনযাত্রা

সূর্যগ্রহণে যেসব কুসংস্কার মানবেন না

নিউজজি ডেস্ক জুন ১০, ২০২১, ১৩:৫৭:৪৫

  • সূর্যগ্রহণে যেসব কুসংস্কার মানবেন না

ঢাকা: বৃহস্পতিবার (১০ জুন) বছরের প্রথম সূর্যগ্রহণের দিন। চন্দ্রগ্রহণের মাত্র ১৫ দিনের মাথায় গ্রহণে পড়ছে সূর্য। এর আগে গত ২৬ মে হয়েছিল বছরের প্রথম চন্দ্রগ্রহণ। এবারের গ্রহণটিকে বলয়গ্রাস সূর্যগ্রহণ বলছেন বিজ্ঞানীরা। বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার (১০ জুন) বাংলাদেশ সময় দুপুর ২টা ১২ মিনিট ৩০ সেকেন্ডে সূর্যের এই গ্রহণ শুরু হবে। শেষ হবে সন্ধ্যা ৭টা ১১ মিনিট ১২ সেকেন্ডে। তবে এবারের সূর্যগ্রহণটি বাংলাদেশ থেকে সরাসরি দেখা যাবে না। 

সূর্য গ্রহণকে ঘিরে প্রচলিত রয়েছে নানা কুসংস্কার। এসব কুসংস্কারে পড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হন অনেকে। যদিও এর কোনো বাস্তবতা নেই। 

সূর্যগ্রহণে যেসব কুসংস্কার মানবেন না

প্রসূতি মায়েদের ভয়: সূর্যগ্রহণের সময় জন্ম নেওয়া শিশুদের ব্যাপারে দুই ধরনের গল্প শুনতে পাওয়া যায়। এক, শিশুটি অসুস্থ হবে এবং দুই, শিশুটি চালাক হবে। তবে এই দুটি ধারণার কোনোটার ক্ষেত্রেই বিশ্বাস করার মতো যুক্তি বা তথ্য পাওয়া যায় না। প্রাচীন অ্যাজটেক সভ্যতায় বিশ্বাস করা হতো, চন্দ্রগ্রহণের সময় চাঁদের এক টুকরো খেয়ে ফেলা হয়। ম্যাক্সিকান সংস্কৃতিতে এটা বিশ্বাসে পরিণত হয়, প্রসূতি মা সূর্যগ্রহণ দেখলে তার অনাগত সন্তানের এক টুকরো খেয়ে নেবেন দেবতারা!

কাত হয়ে শুতে বারণ: সূর্যগ্রহণে অন্তঃসত্ত্বা মায়েদের শান্তি নেই। সেন্ট লুইসে অবস্থিত মার্সি হাসপাতালের গাইনোকোলজিস্ট শাফিয়া ভুট্টো'র মতে, সূর্যগ্রহণের সময় পাকিস্তানে মায়েদের ইচ্ছার বিরুদ্ধে চিত করে শোয়ানো হতো। নইলে নাকি গর্ভের শিশু বিকলাঙ্গ হয়! বাংলাদেশেও এই ধারণার অস্তিত্ব রয়েছে। তবে গর্ভে শিশুকে রেখে চিত হয়ে শোয়াটা মায়েদের জন্য বেশ কষ্টসাধ্য ব্যাপার।

ধাতব অলংকার পরা, খাবার ও টয়লেটে বারণ: ধাতব অলংকার পরতে বারণ করা আছে 'অ্যাস্ট্রোসেইজ' নামে এক জ্যোতির্বিদ্যা সাইটে। অন্যদিকে ম্যাক্সিকান কুসংস্কারে, গ্রহণ চলাকালীন ধাতব অলংকার পরাকে উৎসাহিত করা হয়েছে। মেক্সিকোর প্রসূতি মায়েরা পেটের কাছে ধারালো ছুরি রাখতেন যেন গ্রহণের সময় সন্তানকে ঠোঁট কাটা রোগ থেকে বাঁচানো যায়। 

প্রচলিত আছে, সূর্যগ্রহণের ১২ ঘণ্টা এবং চন্দ্রগ্রহণের ৯ ঘণ্টা আগে থেকে খাবার গ্রহণ করা বারণ। এ সময় যৌন সংসর্গ বারণ, নিষেধাজ্ঞা রয়েছে মলমূত্র ত্যাগেও। তবে এসব ধারণার সুস্পষ্ট কারণ উল্লেখ নেই এবং নিশ্চিতভাবেই কোনো বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা নেই। 

যা মানবেন

সূর্যগ্রহণের সময় সূর্যের দিকে সরাসরি তাকানো বারণ। এটি অবশ্যই মানবেন। সত্যি বলতে, যেকোনো সময়েই সূর্যের দিকে সরাসরি তাকাতে নেই। সেটা হোক গ্রহণের সময়, কিংবা স্বাভাবিক সময়ে। সূর্যগ্রহণ দেখতে কাঁসার পাত্রে পানি থেকে শুরু করে ব্যবহার হয়েছে কাজে লাগে না এমন এক্স-রে প্লেটও। এখন অবশ্য বিশেষ রোদচশমা দিয়ে সূর্যগ্রহণ দেখা যায়। 

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers