শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১ আশ্বিন ১৪২৮ , ৮ সফর ১৪৪৩

ফিচার
  >
মানচিত্র

আপেলের দেশ কাজাখস্তান

নিউজজি ডেস্ক ১৫ অক্টোবর , ২০১৮, ১৫:০৭:১৪

  • আপেলের দেশ কাজাখস্তান

কাজাখস্তান প্রজাতন্ত্র এশিয়ার একটি দেশ। আয়তনের দিক দিয়ে কাজাখস্তান বিশ্বের বৃহত্তম ভূমি পরিবেষ্টিত রাষ্ট্র এবং বিশ্বের সব রাষ্ট্রের মধ্যে নবম বৃহত্তম; রাশিয়া, যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, ব্রাজিল, ইন্দোনেশিয়া, অস্ট্রেলিয়া, চীন ও ভারতের পরেই কাজাখস্তানের স্থান। এদেশের উত্তরে রাশিয়া, পূর্বে গণচীন, দক্ষিণে কিরঘিজস্তান, উজবেকিস্তান ও তুর্কমেনিস্তান এবং পশ্চিমে কাস্পিয়ান সাগর ও রাশিয়া। 

অষ্টম শতাব্দীতে আরবদের আগমনের ফলে এই অঞ্চলে ইসলাম পরিচিতি লাভ করে। ইসলাম প্রথমে দক্ষিণের তুর্কেস্তানে প্রতিষ্ঠা লাভ করে, তারপর উত্তর দিকে বিস্তার লাভ করে। দেশটির ১৩১টি জাতিগত গ্রুপের মধ্যে কাজাখ নামের তুর্কীয় জাতি এখানকার প্রধান জনগোষ্ঠী। ১৮৭০-১৮৭৬ সালের মধ্যে রাশিয়া কাজাখস্তান দখল করে নেয়। ১৯২২ থেকে ১৯৯১ সাল পর্যন্ত কাজাখস্তান সোভিয়েত ইউনিয়নের অংশ ছিল। ১৯৯১ সালের ২৫ ডিসেম্বর কাজাখস্তান সোভিয়েত ইউনিয়ন থেকে স্বাধীনতা লাভ করে। স্বাধীনতার পর থেকে দেশটিতে রাষ্ট্রপতি শাসিত সরকার ব্যবস্থা বিদ্যমান।

কাজাখস্তান প্রায় সম্পূর্ণভাবে এশিয়া মহাদেশে অবস্থিত। তবে দেশটির কিছু অংশ উরাল নদীর পশ্চিমে ইউরোপ মহাদেশে পড়েছে। দেশের উত্তর অংশে অবস্থিত আসতানা শহর দেশটির রাজধানী। বৃহত্তম শহর আলমাতি। ১৯৯৭ সালের আগে আলমাতিই ছিলো কাজাখস্তানের রাজধানী। 

প্রধান কৃষিপণ্যের মধ্যে রয়েছে শস্য, গোল আলু, শাক-সবজি ও গবাদি পশু। এদেশে অঢেল খনিজসম্পদও রয়েছে। কাজাখস্তানের প্রধান রফতানি পণ্যের মধ্যে রয়েছে গম, বস্ত্র ও গবাদি পশু। কাজাখস্তান শীর্ষস্থানীয় ইউরেনিয়াম রফতানিকারক দেশগুলোর মধ্যে অন্যতম। 

বিশ্বের যে কয়েকটি স্থানে আপেলের উৎপত্তি হয় বলে গণ্য করা হয় সেগুলোর মধ্যে কাজাখস্তান অন্যতম। এখানকার আপেলের প্রাচীন জাতটা হলো ম্যালাস সিভারসি। কাজাখস্তানের স্থানীয় ভাষায় এটাকে আলমা বলা হয়। যে অঞ্চলে এর উৎপত্তি ঘটে তাকে বলে আলমাতি অর্থাৎ আপেল সমৃদ্ধ স্থান। মধ্য এশিয়ার দক্ষিণ কাজাখস্তান, কিরগিজস্তান ও তাজিকিস্তান এবং চীনে ঝিনজিয়াংয়ের পার্বত্য বন-জঙ্গলে এখনো প্রাকৃতিকভাবে এই আপেল গাছ জন্মে। 

একনজরে 

পুরো নাম : কাজাখস্তান প্রজাতন্ত্র। 

রাজধানী ও সর্ববৃহৎ শহর : আস্তানা। 

রাষ্ট্রভাষা : কাজাখ, রুশ। 

জাতিগোষ্ঠী : কাজাখ (৬৬.৪৮%), রুশ (২০.৬১%), অন্যান্য (১২.৯১%)। 

সরকারপদ্ধতি : প্রেসিডেন্ট শাসিত প্রজাতন্ত্র। 

আইনসভা : উচ্চকক্ষ সিনেট, নিম্নকক্ষ মাজিলিস। 

সার্বভৌমত্ব ঘোষণা : ২৫ অক্টোবর ১৯৯০। 

প্রজাতন্ত্র ঘোষণা : ১০ ডিসেম্বর ১৯৯১। 

সোভিয়েত ইউনিয়ন থেকে স্বাধীনতা ঘোষণা : ১৬ ডিসেম্বর ১৯৯১।

স্বীকৃতি : ২৬ ডিসেম্বর ১৯৯১। 

আয়তন : ২৭ লাখ ২৪ হাজার ৯০০ বর্গকিলোমিটার। 

জনসংখ্যা : এক কোটি ৮০ লাখ ৫০ হাজার ৪৮৮ জন। 

ঘনত্ব : প্রতি বর্গকিলোমিটারে ৬.৪৯ জন। 

জিডিপি : মোট ৪৬০ বিলিয়ন ডলার। 

মাথাপিছু : ২৫ হাজার ৬৬৯ ডলার। 

মুদ্রা : টেংগে। 

জাতিসংঘে যোগদান : ১৯৯২ সাল।

ছবি ও তথ্য – ইন্টারনেট  

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
        
copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers