মঙ্গলবার, ১৫ জুন ২০২১, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮ , ৪ জিলকদ ১৪৪২

ফিচার
  >
প্রাণী ও পরিবেশ

তেঁতুলিয়ার আগুনমুখা

নিউজজি ডেস্ক ২৬ মে , ২০২০, ০০:৪২:০১

  • তেঁতুলিয়ার আগুনমুখা

ঢাকা : নদী যখন রেগে থাকে, তখন সেই জলের সম্ভারকে আগুনের চেয়ে কম বিপজ্জনক লাগে। বাংলাদেশে এরকম বিপজ্জনক এক জলের জায়গা আছে। সেটাকে বলা হয় আগুনমুখা। 

পটুয়াখালী অঞ্চলে আগুনমুখা খুব ভয়ঙ্কর নদী নামে পরিচিত। নামটিও ভয়ঙ্কর। তবে এ নদীর নাম যেমন ভয়ঙ্কর তার আচরণ ও চলার পথ তেমন ভয়ঙ্কর নয়। এটি বাংলার মানুষের জীবন-জীবিকার সঙ্গে গভীরভাবে জড়িত। 

‘আগুন’ ও ‘মুখা’ শব্দের মিলনে আগুনমুখা নামের উদ্ভব। আগুন শব্দের অর্থ অগ্নি এবং মুখা শব্দের অর্থ মুখমণ্ডল, অবয়ব বা রূপ। সুতরাং ‘আগুনমুখা’ শব্দের আগুনের মতো যার মুখ বা অগ্নির মতো যার রূপ বা অবয়ব। 

চরকাজল ও রতনদি-তালতলি ইউনিয়নের মধ্য দিয়ে তেঁতুলিয়া নদী গলাচিপা ও রাঙ্গাবালী উপজেলায় প্রবেশ করে। তেঁতুলিয়ার নিম্নাংশ কাজল নদী এবং চরকাজলের পশ্চিম অংশ থেকে তেঁতুলিয়া নদীর একটি শাখা আগুনমুখা নাম ধারণ করে। আগুনমুখ ও চরকলমী খালের সম্মিলিত প্রবাহ বঙ্গোপসাগরে মিলিত হয়েছে। বঙ্গোপসাগরে পতিত এ মোহনার উত্তরে ঢেউগুলো আগুনের শিখার রূপ ধারণ করে। তাই এর নাম হয় আগুনমুখা। 

এ অঞ্চলের অন্যান্য নদীর মধ্যে দাড়ছিড়া নদী, বুড়াগৌরঙ্গ নদী, রামনাবাদ নদী, মেঘনা নদী, তেতুলিয়া নদী ও গলাচিপা নদী উল্লেখযোগ্য। দাড়ছিড়া নদী ছিল প্রবল স্রোতসম্পন্ন। এ নদীতে নৌকা চালানোর সময় অনেকে দাড় ছিড়ে যেত। একবার একটি বিশাল সওদাগরি বজড়ার দাড় ছিড়ে যায়। সে হতে নদীটি দাড়ছিড়া নদী নামে খ্যাত হয়ে ওঠে।

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers