বৃহস্পতিবার, ১১ আগস্ট ২০২২, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯ , ১৩ মুহররম ১৪৪৪

শিক্ষা

রাষ্ট্রপতির ছেলের চালককে মারধর: জবি ছাত্রলীগ কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা

জবি প্রতিনিধি ২৮ জুন , ২০২২, ১৮:৩২:১৫

80
  • ছবি: নিউজজি

জবি: রাস্তায় গাড়ি সাইড দেয়াকে কেন্দ্র করে রাষ্ট্রপতির ছেলের গাড়ির চালককে আটকে রেখে মারধর করার অভিযোগ উঠেছে কৌশিক সরকার সাম্য নামের জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) ছাত্রলীগের এক কর্মীর বিরুদ্ধে। পরে ভুক্তভোগী চালক নজরুল ইসলাম সোমবার (২৭ জুন) ওয়ারী থানায় ওই ছাত্রলীগ কর্মীর নামে মামলা দায়ের করেন।

অভিযুক্ত কৌশিক জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গীত বিভাগের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী ও শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম আকতার হোসাইনের কর্মী। তবে সাম্য ছাত্রলীগের কেউ নয় বলে দাবি করেন শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আকতার হোসাইন।

মারধরের শিকার ভুক্তভোগী নজরুল ইসলাম রাষ্ট্রপতির ছেলে রিয়াদ আহমেদ তুষারের গাড়ির চালক বলে জানিয়েছে ওয়ারী থানা পুলিশ।

ওয়ারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কবীর হোসেন হাওলাদার মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ওয়ারীর জবির শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম হলের কাছে গাড়িতে চালক থাকার সময় আসামি সাইড দিতে বলেন। পরে তুচ্ছ ঘটনায় চালককে মারধর করা হয়। তারপর তাকে ধরে নিয়ে আরেক দফা মারধর করা হয়। এছাড়া, প্রাণনাশের হুমকিও দেয়া হয়। এই অভিযোগ করে চালক নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে সাম্যসহ কয়েকজনকে অজ্ঞাত পরিচয়ে আসামি করা হয়েছে। তবে এ মামলায় এখনও পর্যন্ত কেউ গ্রেপ্তার হয়নি।

এ ঘটনার বিষয়ে ওয়ারী থানার ফাঁড়ির পুলিশের উপ-পরিদর্শক জহির হোসেন বলেন, তুচ্ছ ঘটনায় চালককে মারধর করা হয়েছে। বাদী খুব ভয় পেয়ে যান। এমনভাবে মারতে থাকেন যেন আর বাঁচবেন না বলে আমাদের কাছে ভীতি প্রকাশ করেন। চালক রাষ্ট্রপতির ছেলে রিয়াদ আহমেদ তুষারের গাড়ির চালক বলে আমাদেরকে জানান।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. মোস্তফা কামাল বলেন, এ ঘটনার বিষয়ে ওয়ারী থানা থেকে বিষয়টি অবগত হয়েছি। গাড়ির চালক রাষ্ট্রপতি স্যারের ছেলের চালক বলে পুলিশ জানিয়েছে।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম আকতার হোসাইন বলেন, কৌশিক সরকার সাম্য নামের ওই ছেলে ছাত্রলীগের কোনো কর্মী না। গত কয়েকটি প্রোগ্রামেও আসেনি তিনি। পদ্মা সেতুর উদ্বোধন প্রোগ্রাম, ধানমন্ডি-৩২ নম্বরে ফুল দেয়ার প্রোগ্রামসহ কোনো প্রোগ্রামে ছিলেন না তিনি। তবে কোনো শিক্ষার্থী যদি আমার সঙ্গে ছবি তুলতে আসেন তাহলে মানা করা যায় না। তিনি যদি আসামি হয় তাহলে ছাত্রলীগ এর দায়ভার নেবে না।

প্রসঙ্গত, কৌশিক সরকার সাম্য নামে ওই শিক্ষার্থী এর আগে সাংবাদিককে মারধরের ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কার হন।

নিউজজি/ এইচএম

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন