মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ , ১১ জিলহজ ১৪৪৫

অর্থ ও বাণিজ্য
  >
কর্পোরেট সংবাদ

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নে পাঠানো রেমিটেন্স তোলা যাবে বিকাশ এজেন্ট পয়েন্টে

নিউজজি ডেস্ক ২৯ মার্চ , ২০২৩, ১৩:৫৬:৪৭

126
  • ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নে পাঠানো রেমিটেন্স তোলা যাবে বিকাশ এজেন্ট পয়েন্টে

ঢাকা: এখন সারাবিশ্ব থেকে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের মাধ্যমে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিটেন্স গ্রহণ করা যাচ্ছে বিকাশের এজেন্ট পয়েন্ট থেকে। ফলে, দেশের প্রতিটি প্রান্তে ছড়িয়ে থাকা বিকাশের ৩,৩০,০০০ বেশী এজেন্ট পয়েন্ট থেকে অনায়াসেই প্রবাসীদের প্রিয়জনেরা রেমিটেন্সের টাকা গ্রহণ করতে পারছেন তাদের বিকাশ অ্যাকাউন্টে।

সম্প্রতি, ক্রস-বর্ডার লেনদেন ও পেমেন্টের ক্ষেত্রে বিশ্বখ্যাত প্রতিষ্ঠান ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন, দেশের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় ব্যাংক এনসিসি ব্যাংক এবং দেশের বৃহত্তম মোবাইল আর্থিক সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান বিকাশ যৌথভাবে এই ‘এজেন্ট অ্যাসিস্টেড মডেল (পিন ভিত্তিক রেমিটেন্স)’ সেবাটি চালু করেছে।

এই সেবার আওতায় ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন এর আন্তর্জাতিক লেনদেন সেবা গ্রহণকারী গ্রাহক তার নিকটস্থ বিকাশ এজেন্ট পয়েন্টের সহায়তায় বিকাশ অ্যাকাউন্টে অর্থ গ্রহণ করতে পারবেন। বৈধ জাতীয় পরিচয়পত্র, সক্রিয় বিকাশ অ্যাকাউন্ট এবং মানি ট্রান্সফার কন্ট্রোল নম্বর (MTCN) দিয়ে সহজেই রেমিটেন্সের টাকা গ্রহণ করতে পারবেন গ্রাহকরা। নতুন এই সেবার সেটেলমেন্ট পার্টনার হিসেবে কাজ করছে এনসিসি ব্যাংক৷

উল্লেখ্য, ‘হিউম্যান এটিএম’ খ্যাত ৩,৩০,০০০ বিকাশ এজেন্টের দেশব্যাপী বিস্তৃত নেটওয়ার্ক গ্রাহকদের জন্য নিরবচ্ছিন্ন সেবা নিশ্চিত করে থাকে। ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের সাথে সুদূরপ্রসারী এই যৌথ উদ্যোগ দেশের রেমিটেন্স গ্রহণকারী গ্রাহকদের আরও স্বস্তি এনে দেবে এবং বৈধ পথে রেমিটেন্স প্রেরণকে আরো উৎসাহিত করবে।

এই সেবা চালু উপলক্ষ্যে, ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন এর মাধ্যমে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিটেন্সের সর্বনিম্ন ১০,০০০ টাকা গ্রহণ করলে ১০০ টাকা ইনস্ট্যান্ট ক্যাশব্যাক দিচ্ছে বিকাশ। একজন গ্রাহক প্রতিমাসে একবারই এই সেবা গ্রহণ করতে পারবেন। অফারটি চলবে আগামী ৩০ এপ্রিল, ২০২৩ পর্যন্ত।

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের ভারত ও দক্ষিণ এশিয়ার কান্ট্রি ডিরেক্টর গৌরব ইয়াদাভ বলেন, “দ্রুত পরিবর্তনশীল বিশ্বে গ্রাহকদের চাহিদা মেটানোই মুখ্য। এই কৌশলগত উদ্যোগ উদ্ভাবনী প্রযুক্তিভিত্তিক দুটি প্রতিষ্ঠানের প্ল্যাটফর্মকে অর্থ লেনদেনে আরো বেশী সক্ষম করে তুলবে। আরো উদ্ভাবনী আর্থিক অন্তর্ভুক্তির নিশ্চিত করতে গ্রাহককে সরাসরি তার প্রিয়জনের পাঠানো অর্থ পৌঁছে দিয়ে তাদের মানসিক প্রশান্তি দেয়ার চেষ্টা করছি আমরা।”

এ সেবা চালু প্রসঙ্গে বিকাশের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার কামাল কাদীর বলেন, “বাংলাদেশ বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ রেমিটেন্স গ্রহণকারী দেশ। প্রবাসীদের পাঠানো কষ্টার্জিত রেমিটেন্স গ্রহণের প্রক্রিয়া সহজ করার ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে বিকাশ। ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের সাথে এই যৌথ উদ্যোগ বৈধ পথে রেমিটেন্স পাঠানোর প্রক্রিয়াকে বেগবান করে তুলবে, একইসাথে রেমিটেন্স প্রেরণকারী ও গ্রহীতা উভয়ের জন্য আরো স্বাচ্ছন্দ্য নিশ্চিত করবে।”

এনসিসি ব্যাংকের ম্যানেজিং ডিরেক্টর মোহাম্মদ মামদুদুর রশীদ বলেন, “বাংলাদেশে শীর্ষস্থানীয় রেমিটেন্স ব্যাংক হিসেবে, এনসিসি ব্যাংকের লক্ষ্য হল ডিজিটাল চ্যানেলের মাধ্যমে গ্রাহকদের নিরবচ্ছিন্ন পেমেন্ট সুবিধা ও রেমিট্যান্স সেটেলমেন্ট নিশ্চিত করা। এই সেবা গ্রাহকদেরকে বৈধ পথে নিরবচ্ছিন্নভাবে টাকা পাঠাতে উৎসাহিত করবে। এই যৌথ উদ্যোগ বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নেও অবদান রাখবে অনুকরণীয় পেমেন্ট মডেল হিসেবে। সর্বোপরি, উদ্ভাবনী উপায়ে বাংলাদেশকে বিশ্বের সাথে সংযুক্ত করে আর্থিক অন্তর্ভুক্তির যাত্রাকে আরো বেগবান করবে। এনসিসি ব্যাংক এই অনন্য উদ্যোগের সার্বিক সাফল্য কামনা করছে।”

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন