মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১, ১১ শ্রাবণ ১৪২৮ , ১৬ জিলহজ ১৪৪২

শিল্প-সংস্কৃতি
  >
শিল্প সমালোচনা

মরণজয়ী মহান দার্শনিক সক্রেটিস-এর জন্মদিন

ফারুক হোসেন শিহাব ৫ মে , ২০১৮, ১৪:৪৩:৫৩

  • মরণজয়ী মহান দার্শনিক সক্রেটিস-এর জন্মদিন

পাশ্চাত্য সভ্যতার ইতিহাসে জগৎ বিখ্যাত প্রাচীন গ্রিক দার্শনিক সক্রেটিস। তিনি খ্রিষ্টপূর্ব ৪৭০ সালের আজকের দিনে গ্রীসের এথেন্সে জন্ম লাভ করেন বলে বিভিন্ন গবেষকদের তথ্যমতে জানা যায়। এ্যলোপেকি গোষ্ঠীর এক সম্মানিত ব্যক্তির ঘরে জন্ম হয় তার। দার্শনিক প্লেটোর বর্ণনামতে, সক্রেটিসের বাবার নাম সফ্রোনিস্কাস এবং মায়ের নাম ফেনারিটি। 

তার বাবা ছিলেন একজন ভাস্কর। অন্যদিকে তার মা ছিলেন একজন ধাত্রী। সক্রেটিস এথেন্সের অধিবাসী ছিলেন তবে সক্রেটিসের দর্শন চর্চার সবচেয়ে উজ্জ্বল ও আলোকিত কেন্দ্রভূমি ছিল গ্রিস। পৃথিবী বিখ্যাত দার্শনিকদের কথা বলতে গেলে প্রথমেই বলতে হয় সক্রেটিসের কথা। তিনি ছিলেন একজন স্বশিক্ষিত দার্শনিক। প্রাতিষ্ঠানিক পড়ালেখার গণ্ডি বেশি না হলেও তার জ্ঞানের পরিধি ছিল অগাধ।

সক্রেটিস এমন ছিলেন এমন এক দার্শনিক, যিনি আদর্শ ও মূল্যবোধের প্রবর্তক, যা-কিনা পাশ্চাত্য সভ্যতা, সংস্কৃতি ও দর্শনকে দুই হাজার বছরেরও বেশি সময় ধরে প্রভাবিত করেছে। তিনি ঠিক কীভাবে জীবিকা নির্বাহ করতেন তা নিয়ে লিখিত কোন সুনির্দিষ্ট তথ্য পাওয়া যায়নি। তবে এ নিয়ে লিখিত প্রমাণ পাওয়া যায় যে, তিনিও বাবার পেশা বেছে নিয়েছিলেন।

যৌবনে তিনি পদাতিক বাহিনীর ভারি অস্ত্র বিভাগে চাকরি করেছেন। তবে অত্যন্ত সাদাসিধে জীবনযাপন করতেন। বিলাস, প্রাচুর্য ও সম্পদের প্রতি তার কোনো মোহ ছিল না। যেখানেই যাকে পেতেন তাকেই মৌলিক প্রশ্নগুলোর উত্তর বোঝানোর চেষ্টা করতেন। তিনি মানব চেতনায় আমোদের ইচ্ছাকে নিন্দা করেছেন, কিন্তু সৌন্দর্য্য দ্বারা নিজেও আনন্দিত হয়েছেন। 

কথাবার্তা ও আচার আচরণে তিনি ছিলেন মধুর ব্যক্তি। তাই যে-ই তার সাথে কথা বলতো সে-ই তার কথাবার্তা ও চরিত্রসৌন্দর্যে মুগ্ধ হয়ে যেতো। অধিকাংশের বর্ণনামতেই তিনি কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষা প্রদান করতেন না। রাস্তা-ঘাট, হাট-বাজারই ছিল তার শিক্ষায়তন। দর্শন অনুশীলন করতে যেয়ে সংসার ও জীবিকা সম্পর্কে খুবই উদাসীন হয়ে পড়েছিলেন। তিনি। 

এ কারণে শেষ জীবনে তার পুরো পরিবারকেই দারিদ্র ও অনাহারের মধ্যে জীবন যাপন করতে হয়। বেশিরভাগ সময়েই তিনি তার শিষ্যদের বাড়িতে পানাহার করতেন। স্ত্রী জানথিপির কাছে তিনি ছিলেন অবজ্ঞার পাত্র। জানথিপি প্রায়ই বলতেন, তার নিষ্কর্মা স্বামী পরিবারের জন্য সৌভাগ্য না এনে দুঃখ কষ্টই এনেছেন বেশি। তবে বাইরে বাইরে যতই তিক্ততা থাকুক অন্তরের অন্তঃস্থলে স্বামীর জন্য ভালোবাসা ছিল জানথিপির। সক্রেটিসের মৃত্যুতে তিনি যেভাবে শোক প্রকাশ করছেন তা থেকেই এই ভালোবাসার প্রমাণ পাওয়া যায়।

তিনি এথেন্সের মানুষদেরকে উত্তম, সৌন্দর্য এবং গুণ নিয়ে প্রশ্ন করেছিলেন। উত্তর শেনো তিনি বুঝতে পারেন এদের কেউই এই প্রশ্নগুলোর উত্তর জানে না কিন্তু মনে করে যে তারা সব জানে। এ থেকে তিনি সিদ্ধান্তে উপনীত হন এই দৃষ্টিভঙ্গিতে সক্রেটিস সবচেয়ে প্রাজ্ঞ ও জ্ঞানী যে, সে যা জানে না তা জানে বলে কখনও মনে করেনা। 

তার এ ধরনের হেঁয়ালিসূচক প্রজ্ঞা ও জ্ঞান তখনকার স্বনামধন্য এথেনীয়দের বিব্রত অবস্থার মধ্যে ফেলে দেয়। সক্রেটিসের সামনে গেলে তাদের মুখ শুকিয়ে যেতে শুরু করে। কারণ তারা কোন প্রশ্নের সদুত্তর দিতে পারতোনা। এ থেকেই সবাই তার বিরোধিতা শুরু করে।

এছাড়াও একটা সময় সক্রেটিসকে তরুণ সম্প্রদায়ের মধ্যে চরিত্রহীনতা ও দুর্নীতি প্রবেশ করানোর মিথ্যে অভিযোগে অভিযুক্ত করা হয়। সব অভিযোগ বিবেচনায় এনে তাকে মৃত্যুদণ্ড প্রদান করা হয়। এথেনীয় সাম্রাজ্যের সর্বোচ্চ ক্ষমতার যুগ থেকে পেলোপনেশীয় যুদ্ধে স্পার্টা ও তার মিত্রবাহিনীর কাছে হেরে যাওয়া পর্যন্ত পুরো সময়টাই সক্রেটিস বেঁচে ছিলেন। 

পরাজয়ের গ্লানি ভুলে এথেন্স যখন পুনরায় স্থিত হওয়ার চেষ্টা করছিল তখনই সেখানকার জনগণ একটি কর্মক্ষম সরকার পদ্ধতি হিসেবে গণতন্ত্রের সঠিকত্ব নিয়ে প্রশ্ন তোলা শুরু করেছিল। সক্রেটিসও গণতন্ত্রের একজন সমালোচক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন। তাই অনেকে সক্রেটিসের বিচার ও মৃত্যুটিকে রাজনৈতিক বলে ব্যাখ্যা করেছেন। এথেনীয় সরকার সক্রেটিসকে এমন দোষে দোষী সাব্যস্ত করেছিল যাতে তার মৃত্যুদণ্ড প্রদান করা হতে পারে।

ইচ্ছে করলেই সক্রেটিস উচ্চহারে জরিমানা দিয়ে এ দণ্ডাদেশ হতে মুক্তি পেতে পারতেন। তার শিষ্যরাও তাই চেয়েছিলেন কিন্তু তিনি রাজি না হয়ে বরং বিরক্ত হয়েছিলেন। কারণ জরিমানা দিয়ে মৃত্যু থেকে রেহাই পাওয়া মানেই নিজের দোষ স্বীকার করে নেয়া। 

ফলে খ্রিষ্টপূর্ব ৩৯৯ সালে বিষ (হেমলক) পানের মাধ্যমে এ মৃত্যু কার্যকর করা হয়। সক্রেটিস মৃত্যুর মধ্য দিয়ে অমৃতলোকে গমন করেছেন আর তার দর্শন, আদর্শ আজও বিশ্ববিবেকের কাছে হয়ে আছে চিরন্তন।   

নিউজজি/এসএফ

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
        
copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers