মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ৭ আষাঢ় ১৪২৮ , ১১ জিলকদ ১৪৪২

শিল্প-সংস্কৃতি
  >
গ্যালারি

চায়ের রাজধানী শ্রীমঙ্গলে গান্ধী জি’র ছবিমেলা

নিউজজি প্রতিবেদক ১৮ ডিসেম্বর , ২০১৯, ১৮:১৮:৪৩

  • চায়ের রাজধানী শ্রীমঙ্গলে গান্ধী জি’র ছবিমেলা

ভারতের ‘ফাদার অব দ্য নেশন’ মহাত্মা গান্ধী সার্ধশততম বৎসর অর্থাৎ ১৫০তম জন্মতিথিকে চিরস্মরণীয় করে রাখার প্রয়াসে বাংলাদেশের ১৫ জন প্রতিভাবান তরুণ চিত্রশিল্পী আঁকা ছবি নিয়ে আয়োজন করা হয়েছে বর্ণাঢ্য এক চিত্রপ্রদর্শনী। রঙ-তুলি আর প্রতিভাদীপ্ত এই তরুণ শিল্পীদের হাতের জাদুতে অমর হয়ে উঠেছিল সেই প্রেক্ষাপট।

১৪ ডিসেম্বর শনিবার বিকেলে মহাত্মা গান্ধীর সার্ধশত জন্মবার্ষিকী স্মরণে চায়ের রাজধানী শ্রীমঙ্গলে অনুষ্ঠিত চিত্র প্রদর্শনীতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকাস্থ ভারতীয় হাইকমিশনের ডেপুটি হাইকমিশনার বিশ্বদীপ দে। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন সিলেট হাইকমিশন অব ইন্ডিয়ার সহকারী হাইকমিশনার এল কৃষ্ণমূর্তি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) চারুকলা বিভাগের অধ্যাপক এবং ‘গান্ধী@১৫০ আর্ট ক্যাম্প’র মেন্টর (প্রশিক্ষক) বিখ্যাত চিত্রশিল্পী রোকেয়া সুলতানা এবং ভারতীয় হাইকমিশনের সেকেন্ড সেক্রেটারি (মিডিয়া, ইনফরমেশন অ্যান্ড কালচার) দিপ্তি অলংঘাট।

তার আগে গত ১১ ডিসেম্বর ঢাকাস্থ ভারতীয় হাইকমিশনে ‘গান্ধী@১৫০ আর্ট ক্যাম্প’ উদ্বোধন করেন ভারতীয় হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশ। হেমন্তের শেষ গোধূলিতে দৃষ্টিনন্দন প্রাকৃতিক পরিবেশের সৌন্দর্যময় স্থান শ্রীমঙ্গল টি রিসোর্ট অ্যান্ড টি মিউজিয়ামে ১৫ জন শিল্পীর ১৫টি সফল শিল্পকর্ম নানা রঙের সৃজনশীল আলো ছড়াচ্ছিল। ভারতীয় হাইকমিশন আয়োজিত এই প্রদর্শনীতে ঢাবির চারুকলার শিল্পীরা মহাত্মা গান্ধীর আদর্শ, অহিংসা, ভাস্কর্য, চিত্রকর্ম, বাটিকসহ ‘বসুধৈব কুটুম্বকম’ অর্থাৎ সমগ্র বিশ্ব এক পরিবার প্রভৃতি নানান ভাবধারার প্রকাশ ফুটিয়ে তুলেছেন।

এই ১৫ শিল্পী হলেন- রাসেল মিয়া, গৌরব নাগ, শারমিন আক্তার সিমু, নয়ন দত্ত, নুসরাত আলম পৃথা, মৃনাল বণিক, শায়লা শারমিন, রাসেল মিয়া, নুসরাত জাহান তিতলী, আশরাফুল আলম, সিপ্রা রাণী বিশ্বাস, ফৌজিয়া ফারিহা, মিজানুর রহমান, জয়ন্ত মন্ডল ও তাহিয়া হোসেন।

নিজের শিল্পকর্ম সম্পর্কে মৃনাল বণিক বলেন, ‘আমার কাজটা হচ্ছে গান্ধী মার্চ নিয়ে। আমি এখানে আমার কিছু নদীর অংশ দেখাচ্ছি। আমাদের বর্তমানে নদীগুলোর অবস্থা খুবই খারাপ। আমার একটা চিন্তা যে, গান্ধীর মতো করে আমরা এখন আমাদের বিপন্ন নদীগুলো বাঁচানোর জন্য একত্রে হাঁটতে পারি। এরজন্য আমি গান্ধীজির ওয়ার্কিং এবং এর পাশাপাশি নদীগুলোর একটা সিন (দৃশ্য) সেমি-অবস্ট্রাক্ট ফর্মে নিয়ে এসে দেখানোর চেষ্টা করেছি।’

চিত্রশিল্পী নুসরাত জাহান তিতলী বলেন, আমার ছবির টাইটেল হচ্ছে- ‘মহাত্মা গান্ধী ইন বাংলাদেশ’। তিনি তো বাংলাদেশের নোয়াখালীতে এসেছিলেন। আমি ভাবলাম যে খুব সহজে, জটিল না করে কীভাবে দেখাতে পারি তার জার্নিটা। আগে থেকে তার একটা সম্পর্ক ছিল আমাদের দেশের সঙ্গে। এটারই একটা প্রতিফলন এই শিল্পকর্ম।

নিউজজি/এসএফ

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers