মঙ্গলবার, ১৫ জুন ২০২১, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮ , ৪ জিলকদ ১৪৪২

শিল্প-সংস্কৃতি
  >
চলচ্চিত্র

এটিএম শামসুজ্জামানের চিকিৎসায় মেডিকেল বোর্ড গঠন

নিউজজি প্রতিবেদক ২৬ জুন , ২০১৯, ১৩:২০:০৮

  • এটিএম শামসুজ্জামানের চিকিৎসায় মেডিকেল বোর্ড গঠন

ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান অনেক দিন থেকেই গুরুতর অসুস্থ হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। বর্তমানে তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) অধ্যাপক ড. আতিকুর রহমানের তত্ত্বাবধায়নে ভিআইপি ফ্লোরের দ্বিতীয় তলায় তার চিকিৎসা চলছে। 

গুণী এই অভিনেতার চিকিৎসা ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ এবং পরবর্তী চিকিৎসাবিষয়ক আলোচনা ও সিদ্ধান্ত নিতে একটি মেডিকেল বোর্ড গঠিত হয়েছে। আজ বুধবার সকাল ১০টায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসকদের নিয়ে গঠিত ওই বোর্ড মিটিং করেছেন।

এ বিষয়ে এটিএম শামসুজ্জামানের মেয়ে কোয়েল বলেন, ‘সকালে চিকিৎসকদের মিটিং হলো। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি স্যারসহ চিকিৎসকরা আব্বাকে দেখে তার শরীরের বর্তমান অবস্থা জানিয়েছেন। ডা. সামন্ত লাল সেন এসেছেন আব্বার বর্তমান অবস্থা জানতে। একটু পরেই কেইস স্টাডি হাতে পাব।’

তিনি বলেন, ‘চিকিৎসকরা জানিয়েছেন- আব্বা আগের চেয়ে অনেক ভালো আছেন। উনার কিডনি ও লান্সের যে সমস্যা ছিল। যে কারণে উনি আইসি ইউতে ছিলেন। সেটা আগের চেয়ে অনেক ইমপ্রুভ করেছে। রক্ত দেওয়া লাগছে মাঝে মাঝে। আব্বাকে গতকাল এক ব্যাগ রক্ত দেওয়া হয়েছে। আজকে আরেক ব্যাগ রক্ত দেওয়া হবে। এখানে অনেক ভালো চিকিৎসা হচ্ছে তার। আশা করি শিগগিরই  তিনি পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠবেন।’

কোয়েল জানান, দিনের নির্দিষ্ট সময়ে চিকিৎসকরা এটিএম শামসুজ্জামানকে ফিজিওথেরাপি দিচ্ছেন। এর আগে, গত ২৬ এপ্রিল বাসায় অসুস্থ হয়ে পড়েন এটিএম শামসুজ্জামান। সেদিন খুব শ্বাসকষ্ট হচ্ছিল তার। রাতে তাকে পুরান ঢাকার আজগর আলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ১৫ জুন আজগর আলী হাসপাতাল থেকে তাকে বিএসএমএমইউতে আনা হয়। 

উল্লেখ্য, ১৯৪১ সালের ১০ সেপ্টেম্বর নোয়াখালীর দৌলতপুরে এটিএম শামসুজ্জামান জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৬১ সালে উদয়ন চৌধুরীর ‘বিষকন্যা’ সিনেমায় সহকারী পরিচালক হিসেবে কাজ করে ক্যারিয়ার শুরু করেন তিনি। প্রথম চিত্রনাট্যকার হিসেবে তিনি কাজ করেছেন ‘জলছবি’ সিনেমায়। এ পর্যন্ত শতাধিক চিত্রনাট্য ও কাহিনী লিখেছেন বর্ষীয়ান এ অভিনেতা।

তবে ১৯৬৫ সালে অভিনেতা হিসেবে এটিএম শামসুজ্জামানের সিনেমায় অভিষেক ঘটে। ১৯৭৬ সালে আমজাদ হোসেনের ‘নয়নমণি’ সিনেমায় খলনায়ক হিসেবে তার আত্মপ্রকাশ ঘটে। সিনেমার পাশাপাশি অসংখ্য খণ্ড নাটক ও ধারাবাহিকে অভিনয় করেছেন তিনি।

একুশে পদকপ্রাপ্ত বরেণ্য এ অভিনেতার একমাত্র পরিচালিত সিনেমা ‘এবাদত’। এখন পর্যন্ত পাঁচবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন এ কিংবদন্তি। কাজী হায়াতের ‘দায়ী কে’ সিনেমার জন্য দুটি ক্যাটাগরিতে পুরস্কার পান তিনি। এরপর ‘চুড়িওয়ালা’, ‘মন বসে না পড়ার টেবিলে’ এবং ‘চোরাবালি’ সিনেমায় অভিনয়ের জন্য একই পুরস্কার লাভ করেন এটিএম শামসুজ্জামান।

নিউজজি/এসএফ

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers