মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ৭ আষাঢ় ১৪২৮ , ১১ জিলকদ ১৪৪২

শিল্প-সংস্কৃতি
  >
চলচ্চিত্র

ছাড়পত্র পেল শিশিরের ২১ ঘণ্টা ব্যাপ্তির সিনেমা

নিউজজি প্রতিবেদক ১ জুন , ২০১৯, ১৮:৪৩:৪২

  • ছাড়পত্র পেল শিশিরের ২১ ঘণ্টা ব্যাপ্তির সিনেমা

ছাড়পত্র পেয়েছে ২১ ঘণ্টার সিনেমা ‘আমরা একটা সিনেমা বানাব’। গত ১৬ মে দেখার পর ১৯ মে চলচ্চিত্রটিকে ছাড়পত্র দিয়েছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ড। একটি অভিন্ন উদ্যোগে একই শিল্পী ও কলাকুশলীদের নিয়ে কাহিনিভিত্তিক চলচ্চিত্র হিসেবে নির্মিত হয়েছে চলচ্চিত্রটি।

এই ছবিকে পৃথিবীর দীর্ঘতম চলচ্চিত্র দাবি করছেন পরিচালক আশরাফ শিশির। ‘আমরা একটি সিনেমা বানাব’ ছবিটিকে আটটি অধ্যায়ে ভাগ করা হয়েছে। এর মধ্যে প্রথম দুটি অধ্যায় বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডে দেখানোর পর ছবিটি দেখে ছাড়পত্র দিয়েছে বোর্ড। 

পরে পর্যায়ক্রমে বাকি অংশগুলোর জন্যও শিগগির বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডে আবেদন করা হবে। এ মাসে ছবিটি প্রেক্ষাগৃহে অবমুক্ত করা হবে। এরই মধ্যে কয়েকটি চলচ্চিত্র উৎসবে ‘আমরা একটি সিনেমা বানাব’ পাঠানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। 

ছবিটি প্রসঙ্গে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের অন্যতম সদস্য খোরশেদ আলম খসরু বলেন, ‘ছবিটিতে কর্তনের মতো কোনো বিতর্কিত বিষয় নেই। সেই বিবেচনায় ছবিটিকে কর্তন ছাড়াই ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে।’

এ বিষয়ে পরিচালক আশরাফ শিশির বলেন, ‘মুক্ত দৈর্ঘ্যের এ চলচ্চিত্রর পুরো ২১ ঘণ্টা সিনেমা হলে চালানো সম্ভব হবে না। তবে প্রথম দুটি অধ্যায় ২ ঘণ্টা ৫৪ মিনিট ও ২ ঘণ্টা ৪৫ মিনিট দেখানো হবে। প্রথম অংশ মুক্তির একটি নির্দিষ্ট সময় পরে দ্বিতীয় অংশ মুক্তি দেওয়া হবে। বাকি অংশগুলো ছাড়পত্র পাওয়ার পর আমরা প্রত্যন্ত অঞ্চলে বিকল্প ব্যবস্থায় দেখানোর চেষ্টা করব।’

২০০৯ সালের মে মাসে শুরু হয়ে ২০১৮ সালের মে মাস পর্যন্ত, নয় বছর ধরে ঈশ্বরদীর রূপপুর, পাকশী ও পদ্মা নদীর তীরে চার হাজার কলাকুশলী ও শিল্পী নিয়ে এ ছবির শুটিং হয়। ছবিটি প্রযোজনা করেছে ইমপ্রেস টেলিফিল্ম। সম্পূর্ণ সাদাকালোয় নির্মিত এ চলচ্চিত্রের কাহিনি গড়ে উঠেছে এমন এক জনপদকে ঘিরে, যেখানে মুক্তিযুদ্ধ–পরবর্তী সময়ে মাথাচাড়া দিয়ে ওঠে স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি। রাজনৈতিক ও সামাজিক অবক্ষয়ের মধ্যে কয়েকজন মানুষের সিনেমা নিয়ে বিপ্লবী হয়ে ওঠা, স্বপ্ন ও স্বপ্নভঙ্গের গল্প নিয়েই এই ছবির গল্প। 

এ বিষয়ে পরিচালক বলেন, ‘তৃতীয় বিশ্বের ছোট্ট একটি দেশের ছোট্ট একটি শহরে আমাদের যে জীবন, তা ভীষণ সাদাকালো। আমরা যে স্বপ্নটুকু দেখি, তা কিছুটা রঙিন। পরিস্থিতি ও পারিপার্শ্বিকতার কারণে মানুষ অনেক অন্যায় করতে বাধ্য হয়। সিনেমা বানানোর বিপ্লবের পাশাপাশি এখানে এমন এক নিষ্পাপ মানুষের গল্প রয়েছে। অথচ ছবির শেষের দিকে সে একজনকে খুন করে ফেলে একজন নারীর জন্য, যাকে সে কোনো দিন দেখেওনি।’

উল্লেখ্য, আশরাফ শিশিরের প্রথম চলচ্চিত্র ‘গাড়িওয়ালা’ ৩২টি দেশের শতাধিক আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে অংশ নেয় এবং জাতীয় পুরস্কারসহ ২৭টি আন্তর্জাতিক পুরস্কার লাভ করে। তার মধ্য দৈর্ঘ্যের চলচ্চিত্র ‘যুদ্ধটা ছিল স্বাধীনতার’ এবার ৭২তম কান চলচ্চিত্র উৎসবে ‘শর্টফিল্ম কর্নার’ বিভাগে অন্তর্ভুক্ত হয় এবং এখন পর্যন্ত ৯টি দেশের ১৪টির বেশি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে অংশ নেয়।

নিউজজি/এসএফ

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers