বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৬ আশ্বিন ১৪২৮ , ১৩ সফর ১৪৪৩

দেশ

স্ত্রীর বিরুদ্ধে বিষ দিয়ে পুকুরের মাছ নিধনের অভিযোগ

জামালপুর প্রতিনিধি ২৮ জুলাই, ২০২১, ১৯:২৭:১৭

  • ছবি : নিউজজি

জামালপুর: সদর উপজেলার ইটাইল ইউনিয়নের ইটাইল মধ্য পাড়া এলাকায় বিষ দিয়ে মাছ নিধনের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় দ্বিতীয় স্ত্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছে স্বামী।

মঙ্গলবার গভীর রাতে দূর্বত্তরা মো.আনোয়ার হোসেনের পুকুরে বিষ দিয়ে মাছ নিধন করছে। এতে প্রায় সাড়ে ৪ লাখ টাকা মাছ মরে গেছে বলে জানান মাছ চাষী আনোয়ার হোসেন।

বুধবার সকালে স্থানীয় লোকজন পুকুর থেকে মাছ ভেসে উঠেতে দেখে আনোয়ার হোসেনকে খবর দেয়। আনোয়ার পুকুরে এসে দেখে পুকুরের সব মাছ মরে ভেসে উঠেছে। পরে তিনি নরুন্দি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। সাড়ে চার লক্ষাধিক টাকার মাছ ক্ষতি হয়েছে বলে জানান আনোয়ার হোসেন। মাছ চাষী আনোয়ার হোসেনের ৫টি পুকুরের মধ্যে একটি পুকুরে বিষ দিয়েছে দূর্বত্তরা। পুকুরে পাঙ্গাশ, রই, গ্রাস কার্পসহ বিভিন্ন প্রজাতির দেশী মাছ চাষ করা হয়েছিল।

মাছ চাষী আনোয়ার হোসেন জানান, তিনি ঢাকায় কাপড়ের ব্যবসা করেন। বাড়িতে সে ৫টি পুকুরে দেশী মাছের চাষ করেন। এখান থেকে বছরে তার সংসারে  বড় আয় হয়। বাড়িতে তার প্রথম স্ত্রী পুকুরের মাছ চাষ দেখেন। গত ৭মাস আগে সে জামালপুর শহরের বনপাড়া এলাকার আজিজ খানের মেয়ে কানিজ ফাতেমা অভি (লিমা) কে বিয়ে করে। লিমা বিভিন্নভাবে তার কাছে টাকা দাবী করে। টাকা দিতে সমস্যা হলেই নানাভাবে হুমকি দেয়। কোরবানী ঈদের পরে লিমা ৬০হাজার টাকা চায় এবং না দিলে ক্ষতি করার হুমকি দেয়। গতকাল মঙ্গলবার রাতে লিমা তার মা, বাবাসহ আরও দুইজনকে নিয়ে লিমা বাড়িতে তার ছোট ভাই সাঈদকে খোঁজতে আসে। লিমাই ষড়যন্ত্র করে পুকুরে বিষ দিয়ে মাছ মেরেছে বলে স্বামী আনোয়ার হোসেনের অভিযোগ।

প্রতিবেশি মো. ফরিদুল ইসলাম বলেন, পুকুরের সব মাছ মরে গেছে। এই ক্ষতি মানা যায় না।

প্রতিবেশি মো.মোশাররফ হোসেন জানান, আনোয়ার দীর্ঘদিন ধরে মাছের চাষ করছে। এলাকায় তার কোন শক্র নেই। যারাই এই ঘটনা ঘটিয়েছে তাদের গ্রেপ্তার করে সঠিক বিচার দাবি করছি।

মাছ চাষী আনোয়ার হোসেনের ভাই আক্রাম হোসেন জানান, গতকাল আনোয়ার ভাইয়ের দ্বিতীয় স্ত্রী ফোন দিয়ে বলে ৬০ হাজার টাকা দিতে হবে। পরে বলি টাকার বিষয় তো কিছু জানি না। তখন বলে আসতেছি টাকা না দিলে বড় রকমের ক্ষতি হবে বলে হুমকি দেয়।

প্রতিবেশী সাইফুল মালেক জানান, মাছ চাষী আনোয়ার হোসেনে বিষ দিয়ে মাছ মারাতে তার বিশাল ক্ষতি হয়েছে। যেই এ কাজটি করেছে তার দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবী করছি।

দ্বিতীয় স্ত্রী কানিজ ফাতেমা অভি (লিমা) সাংবাদিকদের জানান, বিয়ের পর থেকে আনোয়ার হোসেন তার কোন খোঁজ খবর নেয় না। তাকে অন্যায় ভাবে মাছ নিধনের অভিযোগ দিচ্ছেন।

নরুন্দি পুলিশ তদন্ত কেন্দের ইনচার্জ টিপু সুলতান জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। ক্ষতিগ্রস্থ আনোয়ার হোসেন মামলা দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজজি/ এসআই

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
        
copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers