সোমবার, ২২ জানুয়ারি ২০১৮, , ৪ জুমাদিউল আউয়াল ১৪৩৯

সাহিত্য

বইমেলায় স্টল বরাদ্দে অনিয়মের অভিযোগ

নিউজজি প্রতিবেদক ১০ জানুয়ারি , ২০১৮, ১৮:৪৫:৩২

  • বইমেলায় স্টল বরাদ্দে অনিয়মের অভিযোগ

বাংলা একাডেমি আয়োজিত আসন্ন অমর একুশে গ্রন্থমেলার স্টল বরাদ্দের ক্ষেত্রে অনিয়মের অভিযোগ করেছে কয়েকটি প্রকাশনা সংস্থা। গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীর কাঁটাবনের বইপাড়া কনকর্ড এম্পোরিয়ামে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে প্রকাশনা সংস্থা বেহুলাবাংলা, মেঘ ও টাপুরটুপুর অনিয়মের অভিযোগ তোলে।

অমর একুশে গ্রন্থমেলায় অংশ নিতে নিয়ম মেনে স্টল বরাদ্দ দেওয়া হয়নি বলে মনে করছে তারা। এসব প্রকাশকদের অভিযোগ- সিন্ডিকেটের মাধ্যমে স্টল বরাদ্দ দেওয়ায় বড় প্রতিষ্ঠানগুলোকে বেশি বেশি সুযোগ সুবিধা দিয়ে সিন্ডিকেটের বাইরের ও নবীন প্রকাশনীদের বঞ্চিত করা হয়েছে। 

আগামী ১১ জানুয়ারির মধ্যে স্টল বণ্টন পুনর্বিবেচনা করার দাবি জানিয়েছেন প্রতিবাদকারী প্রকাশকরা। তা না হলে ১৩ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হবে বলে ঘোষণা দেন তারা।

এ বিষয়ে চন্দন চৌধুরী বলেন, ‘তারুণ্য নির্ভর প্রকাশনাগুলো যেখানে ঠিক ভাবে স্টলের ইউনিট পাচ্ছে না, সেখানে মেলায় প্যাভিলিয়নের সংখ্যা ১১ থেকে বাড়িয়ে ২৫টি করা হয়েছে। যদি নতুন স্টল বাড়ানোর জায়গা না থাকে কিভাবে ২৫টি প্যাভিলিয়ন করা হলো?’

টাপুরটুপুর প্রকাশনীর প্রকাশক অভিযোগ করে বলেন, ‘টাপুরটুপুর ছোটদের প্রকাশনী। এই প্রকাশনীরও অর্ধ শতাধিক বই রয়েছে। জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক ইমদাদুল হক মিলন, মহাদেব সাহা, আখতার হুসেনদের বই থাকা সত্ত্বেও টাপুরটুপুরকে স্টল বরাদ্দ দেওয়া হয়নি।’

বেহুলাবাংলা প্রকাশনীর স্বত্বাধিকারী চন্দন চৌধুরী বলেন, ‘বেহুলাবাংলা এ বছর দেড় শতাধিক বই প্রকাশ করছে। যেখানে বিনয় মজুমদার বিষয়ক প্রবন্ধ সমগ্র, মঈন চৌধুরীর দর্শন বিষয়ক রচনা সমগ্র, নির্মলেন্দু গুণের সাক্ষাৎকার সমগ্রের মতো হাজার পৃষ্ঠার বইও রয়েছে। সারাবছর বই প্রকাশের পাশাপাশি শুধু ২০১৭ সালের মেলাতেই আমরা ৮৩টি বই প্রকাশ করেছি। অথচ এত সংখ্যক বই প্রকাশের পরও এক ইউনিটের স্টল বরাদ্দ দেওয়া হলো। স্টলে বই সাজিয়ে রাখাই হবে কষ্টসাধ্য।’

অনিয়মের অভিযোগ অস্বীকার করে বাংলা একাডেমির পরিচালক ও মেলা আয়োজক কমিটির সদস্য সচিব ড. জালাল আহমেদ বলেন, ‘আয়োজক কমিটি বিচার বিবেচনা করে যোগ্য প্রকাশনীকেই স্টল বরাদ্দ দিয়েছে। এক ইউনিট পেয়ে যদি কেউ সন্তুষ্ট না থাকে, তিন ইউনিট চায়, সে ক্ষেত্রে কিছু বলার নেই। যেখানে এক ইউনিট পাওয়াই অনেক কষ্টের।’

নিউজজি/এসএফ

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
copyright © 2016 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers