মঙ্গলবার, ২৩ জানুয়ারি ২০১৮, , ৫ জুমাদিউল আউয়াল ১৪৩৯

খেলা

তিন নম্বরে ব্যাটিং করবেন সাকিব

শামীম চৌধুরী জানুয়ারী ১৪, ২০১৮, ১৯:১০:০৫

  • ছবি: ইন্টারনেট থেকে

ঢাকা: আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তিন নম্বরে ব্যাট করতে অভ্যস্ত নন সাকিব আল হাসান। ১৮০টি ওয়ানডে ম্যাচের মধ্যে মাত্র ২টিতে সাকিব ৩ নম্বরে করেছেন ব্যাট। ২০১৪ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন নম্বরে ব্যাট করে রানের দেখা পাননি, গত বছর দক্ষিন আফ্রিকা সফরে কিম্বারলিতে তিন নম্বরে ব্যাট করে ২৯ রানের ইনিংস আছে এই বাঁ হাতির। ১৮০ ম্যাচে ৫০৮০ রানের অধিকাংশই করেছেন তিনি ৫ নম্বরে ব্যাট করে। ১২২ ম্যাচে ৩৫.৪৪ গড়ে ৩৭৫৭ রান, ৫ সেঞ্চুরি,২৯ ফিফটি করেছেন তিনি ৫ নম্বরে নেমে। ৪ নম্বরেও পেয়েছেন রানের দেখা, ৩০ ম্যাচে ২ সেঞ্চুরি, ৪ ফিফটিতে ৯৫৯ রানে গড় ৪১.৬৯। অথচ, ৪ এবং ৫ নম্বরে সাবলীল ব্যাটিংয়ের অতীত আছে যার, সেই সাকিব আল হাসানকে মিডল অর্ডার থেকে টপ অর্ডারে ব্যাটিংয়ে প্রমোশন দিচ্ছে বাংলাদেশ টিম ম্যানেজমেন্ট। রবিবার সে সিদ্ধান্তের কথাই জানিয়েছেন বাংলাদেশ দলের টেকনিক্যাল ডিরেক্টর খালেদ মেহমুদ সুজন-‘   তিন নম্বর কেউ ফিট হচ্ছিল না, আমরা চাই যে ওখানে কেউ একজন নিয়মিত খেলুক। আমরা অনেক চিন্তা করে দেখেছি যে, এই পজিশনে অভিজ্ঞ কাউকেই খেলানো উচিৎ। 
 
আমরা সাকিবকে পছন্দ করেছি এই পজিশনে ব্যাট করার জন্য।’ আক্রমনাত্মক ব্যাটিংয়ের কারনেই সাকিবকে তিন নম্বরে পছন্দ করেছে টিম ম্যানেজমেন্ট, এটাই জানিয়েছেন সুজন-‘ আমি মনে করি সাকিব খুব আক্রমণাত্মক, সেই সাথে এমন পজিশনে চাই যে কিনা কন্ডিশনে নিজেকে চেঞ্জ করার সামর্থ্য রাখে। আমরা তাই ঠিক করেছি যে সাকিবকে পর্যাপ্ত সময় দিব তিন নম্বরে। ’
 
ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজে সাকিব তিন নম্বরে ব্যাট করলে মুশফিক থাকছেন ৪ নম্বরে। কিন্তু ৫ নম্বরে কে ? এই পজিশনের জন্য যথার্থ মাহামুদুল্লাহ, আইসিসি’র ২টি মেগা আসরে ২টি বড় দলের বিপক্ষে জয়ে দ্য ফিনিশারের ভুমিকায় অবতীর্ন হয়ে তা জানিয়ে দিয়েছেন মাহামুদুল্লাহ। সে কারনেই ৫ নম্বরটি এই সিরিজ থেকে স্থায়ী হচ্ছে তার। এমনটাই জানিয়েছেন সুজন-‘ অবশ্যই নম্বর পাঁচে আমরা মাহমুদুল্লাহ রিয়াদকে চিন্তা করছি।’ 
 
ইমরুল কায়েসের ডান হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলে চোট ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে ফিরিয়ে আনছে এনামুল হক বিজয়কে। ৩৪ মাস পর ওয়ানডে ক্রিকেটে ফিরছেন এই টপ অর্ডার। ওয়ানডে ক্রিকেটে ৩০ ইনিংসে ৯৫০ রানে গড় তার ৩৫.১৮, কিন্তু স্ট্রাইক রেট ৭০.০০! তারপরও তামীমের ওপেনিং পার্টনার হিসেবে তাকেই নিতে হচ্ছে বেছে।  সর্বশেষ বিপিএলের পারফরমেন্স এবং সিলেট সিক্সার্সের মেন্টর পাকিস্তানের লিজেন্ডারী পেস বোলার ওয়াকার ইউনুসের প্রেসক্রিপশনে  ৩৩ মাস পর ওয়ানডেতে ফিরছেন আবুল হাসান রাজু। ঘরোয়া ক্রিকেটে ধারাবাহিক পারফরমেন্স এই দুই ক্রিকেটারকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার প্লাটফর্ম তৈরি করে দিয়েছে বলে মনে করছেন সুজন-‘ তারা দুজনেই ঘরোয়া ক্রিকেটে ভাল করেছে। রাজুর  ফিটনেস নিয়ে দুশ্চিন্তা ছিল। এখন  সে  ফিট। তার ফিটনেস নিয়ে আমি খুশি। আর বিজয় তো দুই আড়াই বছর ধরে দারুণ খেলছে। সব ফরমেটেই ভাল করছে।  পারফরম্যান্সই ওদেরকে দলে ফিরিয়ে এনেছে।  আশা করি যে দু’জনেই ভালোভাবে ফিরতে আসতে চাইবে।’
 

 

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

copyright © 2016 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers