মঙ্গলবার, ২৩ জানুয়ারি ২০১৮, , ৫ জুমাদিউল আউয়াল ১৪৩৯

বিনোদন

লাইট-ক্যামেরা-অ্যাকশনেই আনন্দ শাবনূরের

আলমগীর কবির  জানুয়ারী ১৪, ২০১৮, ১৩:৩২:৫১

  • লাইট-ক্যামেরা-অ্যাকশনেই আনন্দ শাবনূরের

খুব ভালো কাঁদতে পারেন, হাসতে পারেন প্রাণ খুলে, সময়ের প্রয়োজনে অ্যাকশন দৃশ্যেও বেশ সাবলীল শাবনূর। সেই নব্বইয়ের দশক থেকে যার অভিনয় আলাদা আকর্ষণ তৈরি করে আসছে দর্শকদের মাঝে। 

শাবানা পরবর্তী সময়ে বাংলা চলচ্চিত্রে অভিনয়ে রানির আসন পেয়েছিলেন কেবল শাবনূরই। এতটা প্রাণবন্ত আর বাস্তবসম্মত অভিনয় আর কেউ করতে পারেনি। তার সবচেয়ে হিট ছবির নায়ক, সালমান শাহ হলেও অন্য অভিনেতাদের সাথেও শাবনূর ছিলেন সাবলীল। অবস্থা এমন হয়েছিল যে, বিপরীতে অভিনেতা যেই হােক, শাবনূর আছেন মানে ছবি হিট। 

কিন্তু হঠাৎ করেই তিনি কমিয়ে দিয়েছেন ছবির সংখ্যা। জনপ্রিয়তার শীর্ষে থেকেও একের পর এক ছবির প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছেন। পাড়ি জমিয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ায়। সেখান থেকেই জানিয়েছিলেন বিয়ের খবর, বছরখানেকের মধ্যে আসে সন্তান। ব্যস্ত হয়ে পড়েন সংসারে। 

কিন্তু অভিনয় যার রক্তে মেশা তিনি কি রঙিন পর্দার বাইরে থাকতে পারেন! তাই তো অস্ট্রেলিয়া থেকে দেশে এসেই নতুন করে চলচ্চিত্রের ফেরার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন এই অভিনেত্রী। কিন্তু সন্তান জন্মের পর মুটিয়ে যাওয়া শরীর নিয়ে কবে থেকে নিয়মিতভাবে ক্যামেরার সামনে দেখা যাবে সেই তারিখ স্পষ্ট করে বলেননি তিনি। 

তবে অস্ট্রেলিয়া থেকে ফেরার পর নতুন একটি বিজ্ঞাপনে মডেল হয়েছেন। পূর্বে শুরু করা একটা ছবির শেষ কয়েকটা দৃশ্যেও অভিনয়ও করেছেন। গত ১২ জানুয়ারি এই ছবিটি মুক্তি পেয়েছে। নাম- পাগল মানুষ। এই ছবির কাজ শুরু হয়েছিল ২০১২ সালে। কিন্তু পরিচালক এম এম সরকারের মৃত্যুর কারণে ছবির নির্মাণ কাজ অনিশ্চিত হয়ে পড়ে। এরপর বদিউল আলম খোকনের সার্বিক তত্ত্বাবধানে সময় নিয়ে ছবিটির নির্মাণ শেষ হয়। 

পাগল মানুষ ছবির শুরুর দৃশ্যের সাথে শেষ দৃশ্যের দূরত্ব প্রায় ছয় বছরের। কারণ ২০১২ সালে শুটিং শুরু হয়ে শেষ হয়েছিল ২০১৭ সালে। এই সময়ের মধ্যে শাবনূরের মধ্যে পরিবর্তন এসেছে বিস্তর। ব্যাপারটি পর্দায় দেখতে কেমন লেগেছিল শাবনূরের, প্রেক্ষাগৃহে গিয়ে এখনো ছবিটি দেখতে পারিনি। তবে কদিনের মধ্যে যাওয়ার একটা পরিকল্পনা আছে। এত ঝড়ের পর ছবিটি যে শেষ পর্যন্ত মুক্তি পেয়েছে সেটাই বড় বিষয়। এ ছবিতে আমাকে মোটা লাগাটাই স্বাভাবিক। কারণ সে সময়ে আমি শারীরিকভাবে অসুস্থ ছিলাম। তবে অনেকে ছবিটি দেখছে এটা খবর পেয়েছি। এ ছবিতে শাবনূরের বিপরীতে অভিনয় করেছেন নতুন অভিনেতা শাহের খান।

কেমন করেছেন এ অভিনেতা?  শাবনূর বলেন, নতুনদের সাথে আগেও আমি কাজ করেছি। ভালো নাকি খারাপ হয়েছে, সেটা দর্শক ভালো বলতে পারবেন। তবে কাজ করতে গিয়ে দেখেছি বেশ চেষ্টা করেছে শাহের। তিনি বলেন, আর যেহেতু এখনো সিনেমা হলে গিয়ে ছবিটি দেখা হয়নি তাই এর বেশি মন্তব্য করতে চাই না। অনেকদিন ধরেই শোনা যাচ্ছে শাবনূর নতুন ছবি নিয়ে ফিরবেন।

সেটা কবে জানতে চাইলে এই জনপ্রিয় অভিনেত্রী বলেন, ফিরব। খুব শিগগিরই কাজে ফেরার ইচ্ছে আছে। নিজের শরীরের ওজন কমানোর চেষ্টা করছি। কারণ মোটা হয়ে দর্শকের মন আর ভাঙতে চাই না। (হা হা হা )...। 

এই হাসি প্রমাণ করে দেয় যে শাবনূর নিজেও বুঝতে পেরেছেন তিনি আগের চেয়ে অনেক বেশি মুটিয়ে গেছেন। আর তাই নিজের ওজন কমিয়ে দর্শকের সামনে নতুন লুকে হাজির হতে চান এ অভিনেত্রী। সেভাবেই বর্তমানে প্রস্ততি নিচ্ছেন তিনি।

বিশেষ করে মোস্তাফিজুর রহমান মানিকের নতুন ছবি ‘এত প্রেম এত মায়া’-তে তাকে দেখা যাবে বলে জানালেন শাবনূর। এ ছবির জন্য শ্রী প্রীতমের সুর-সঙ্গীতে করা একটি গানে প্লে-ব্যাকও করেছেন তিনি। তাই পরিচালক ধরেই নিয়েছেন যে, খুব শিগগিরই শুটিং শুরু করবেন শাবনূর।

কবে থেকে শুরু হতে পারে এই শুটিং? শাবনূর বলেন, আমি কিছুটা সময় নিয়েই কাজে ফিরতে চাই। এটা আগেও বলেছি। কাজ ছাড়া আমি থাকতে চাই না। তাই ওজন কমানোর চেষ্টা করছি। যদি সফল হই, তাহলে খুব শিগগিরই ক্যামেরার সামনে আবারও হাজির হব। লাইট-ক্যামেরা-অ্যাকশনের মাঝে শাবনূরের আনন্দ, তার প্রাণ। তাই বেশিদিন ক্যামেরার বাইরে থাকতে চান না তিনি। 

নিউজজি/একে/এমকে

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
copyright © 2016 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers