মঙ্গলবার, ২৩ জানুয়ারি ২০১৮, , ৫ জুমাদিউল আউয়াল ১৪৩৯

শিল্প-সংস্কৃতি

লক্ষ্মীপুরে শুরু হলো ‘আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব’

নিউজজি প্রতিবেদক ১০ জানুয়ারি , ২০১৮, ১৪:২৬:০৫

  • লক্ষ্মীপুরে শুরু হলো ‘আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব’

প্রথমবারের মতো লক্ষ্মীপুরে শুরু হয়েছে আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব। জেলার টাউন হল মিলনায়তনে আজ ১০ জানুয়ারি বুধবার শুরু হলো ‘গ্লোবাল ইয়ুথ ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল লক্ষ্মীপুর’ (জিওয়াইএফএফএল) শিরোনামের এই উৎসব।  সকাল ১১টায় লক্ষ্মীপুর টাউন হল মিলনায়তনে ভিডিও সংযোগের মাধ্যমে উৎসব উদ্বোধন করেন ইন্টারন্যাশনাল থিয়েটার ইনস্টিটিউটের (আইটিআই) সাম্মানিক সভাপতি রামেন্দু মজুমদার।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও লক্ষ্মীপুর সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মাইন উদ্দিন পাঠান, জেলা পরিষদ সদস্য ফরিদা ইয়াসমিন লিকা, আইনজীবী সেলিনা আক্তার, আদর্শ সামাদ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক উত্তম কুমার ভৌমিক, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল মতলব ও উৎসব পরিচালক জিসান মাহাদিসহ বিশিষ্টজনেরা।

তিন দিনব্যাপী এ উৎসবে ৬টি ক্যাটাগরিতে বিশ্বের ১০২টি দেশের মোট ২ হাজার ৪৮টি চলচ্চিত্র জমা পড়েছে। বেস্ট অব দ্য ফেস্ট বিভাগে ৩৬৬টি, শর্ট ফিল্ম বিভাগে ১ হাজার ৩০টি, ইন্টারন্যাশনাল শর্ট বিভাগে ৯৮৪টি, ডকুমেন্টারি বিভাগে ২৭২টি, অ্যানিমেশন বিভাগে ৪০৩টি ও লোকাল ট্যালেন্ট বিভাগে ৬৯টি। এর মধ্যে ৪৬টি দেশের ৬৩টি ছবি উৎসবে প্রদর্শিত হবে।

প্রথমবারের মতো আয়োজিত এ উৎসবে প্রদর্শিত হবে দেশ-বিদেশের প্রায় অর্ধশতাধিক তরুণ নির্মাতার চলচ্চিত্র। যার বেশিরভাগ নির্মাতাই উৎসবে উপস্থিত থাকবেন বলে আশা করছেন আয়োজকরা। উৎসবের অন্যতম আকর্ষণীয় দিক হলো, বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের নির্মাতাদের সঙ্গে তিন দিনব্যাপী বাংলাদেশি তরুণ নির্মাতারা কর্মশালায় অংশ নেওয়ার মাধ্যমে নিজেদের ভাবনা-অভিজ্ঞতা বিনিময়ের সুযোগ পাবেন।

‘লেটস সিনেমা’ স্লোগানে আয়োজিত এ উৎসবের জুরিবোর্ড সদস্য হিসেবে থাকছেন বিজ্ঞাপন ও চলচ্চিত্র নির্মাতা অমিতাভ রেজা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিভি ও চলচ্চিত্র বিভাগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শফিউল আলম ভূঁইয়া এবং অভিনেত্রী রোকেয়া প্রাচী।

এ বিষয়ে উৎসব পরিচালক জিসান মাহাদি বলেন, ‘আমরা এই আয়োজনের মধ্য দিয়ে ঢাকার বাইরের তরুণদের উৎসাহিত করতে চাই। কেননা, সব আয়োজনই আসলে ঢাকাকেন্দ্রিক হয়ে গেছে। যে কারণে লক্ষ্মীপুরের মতো শহরেও যে আন্তর্জাতিক মানের চলচ্চিত্র উৎসব আয়োজন করা সম্ভব, এই আয়োজনের মধ্য দিয়ে সেটাই আমরা প্রমাণ করতে চাই।’

এই উৎসবে ছয়টি বিভাগে জুরিবোর্ড সদস্যদের মাধ্যমে নির্বাচিত সেরা চলচ্চিত্রগুলো পুরস্কার পাবে। উৎসবের সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানটি হবে ১২ জানুয়ারি সন্ধ্যায়, টাউনহল মিলনায়তনে। উৎসব সমন্বয়কের দায়িত্বে রয়েছেন ইয়াসিন চৌধুরী তুষার। 

তিনি বলেন, ‘সারাবিশ্ব থেকে আমরা অভাবনীয় সাড়া পেয়েছি। বিশ্বের এত এত ছবি জমা পড়বে, আমরা সত্যিই আশা করিনি। এবার সফলভাবে উৎসবটি করতে চাই। সেজন্য স্থানীয় সর্বস্তরের সিনেপ্রেমীদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ আশা করছি।’ 

নিউজজি/এসএফ

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

copyright © 2016 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers