বুধবার, ২৪ জানুয়ারি ২০১৮, , ৬ জুমাদিউল আউয়াল ১৪৩৯

দেশ
  >
জনপদ

শ্রীপুরে পোশাক শ্রমিককে ধর্ষণের অভিযোগ

শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি ১৩ জানুয়ারি , ২০১৮, ২১:০৩:০২

  • শ্রীপুরে পোশাক শ্রমিককে ধর্ষণের অভিযোগ

গাজীপুর: জেলার শ্রীপুরের টেপিরবাড়ি গ্রামে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক পোশাক শ্রমিককে (২০) ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।   

একই গ্রামের মো. ইজাজুল ইসলাম কক্সবাজারের একটি আবাসিক হোটেলে নিয়ে পাঁচ দিন রেখে ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ করেছে ধর্ষিতা পোশাক শ্রমিক। তার বাবার নাম মো. কলিম উদ্দিন।

ধর্ষিতা পোশাক শ্রমিক বলেন, গত ৪ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার ইজাজুল বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে বেড়াতে নিয়ে যায়। সেখানে একটি আবাসিক হোটেলে রেখে ৫ দিন অবস্থান নিয়ে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে। বাড়িতে এসে বিয়ে করবে বলে প্রতিশ্রুতি দেয়। পাঁচ দিন পর মঙ্গলবার সকালে বাড়ি ফিরে এলে ইজাজুল আমার সাথে সকল যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়।

ইজাজুলকে খুঁজতে তার বাড়িতে গেলে তার পরিবারের লোকজন আমাকে অবরুদ্ধ করে শারীরিক নির্যাতন চালায়। পরে আমার চিৎকারে প্রতিবেশীরা এসে আমাকে উদ্ধার করে।

সে আরো জানায়, পরদিন বৃহস্পতিবার সকালে স্থানীয় ইউপি ৮নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. পিওর আমার ভাড়া বাসায় এসে ইজাজুলের সাথে অন্তরঙ্গ মুহূর্তের কিছু ছবি আমার স্মার্টফোনে দেখে জোরপূর্বক ফোনটি ছিনিয়ে নেয়। এবং এ ছেলে (ইজাজুল) ভালো না ‘খুন খারাবি করে ফেলবে’, ‘বাঁচতে চাইলে এলাকা ত্যাগ কর’ বলে হুমকি দেয়।

ধর্ষিতার পিতা বলেন, এ ঘটনা শুনে বৃহস্পতিবার সকালেই ময়মনসিংহ জেলার হালুয়াঘাট উজেলার বালুঝুড়ি গ্রাম থেকে মেয়ের ভাড়া বাসায় এসে বিস্তারিত জানি। পরে এ বিষয়ে ইউনিয়ন পরিষদে মেম্বারের কাছে গেলে তিনি কিছু টাকা জরিমানা করে দিবে। এই জরিমানার টাকা নিয়ে আমরা যেন এই এলাকা ছেড়ে চলে যাই এমন কথা বলে তার অফিস থেকে বের করে দেয়।

তিনি আরো জানান, এ হুমকির দুদিন হলেও আমরা ওই এলাকা না ছাড়ায় প্রতিনিয়ত একের পর এক হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। আমরা ঘর থেকে বের হতে পারছি না। শনিবার সকালে থানায় খবর দিলে পুলিশ এসে আমাকে ও আমার মেয়েকে উদ্ধার করে।

শ্রীপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. নাজমুল সাকীব জানান, খবর পেয়ে পোশাক শ্রমিককে উদ্ধার করা হয়েছে। তার স্মার্টফোনটি ইউপি মেম্বারের কাছ থেকে পাওয়া গেছে। ফোনে থাকা ইজাজুলের সাথে ছবি ও প্রায়োজনীয় আলামত ঠিক আছে কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানান ওসি।

নিউজজি/জেডকে

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

copyright © 2016 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers